২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ইংরেজী
শনিবার, 28 ডিসেম্বর 2013 16:12

বান্দরবান মাতালেন বাংলাদেশী প্রথম আইডল মং উচিং মার্মা

লিখেছেনঃ সুবল বড়ুয়া

 

বান্দরবানে ব্যাপক ও মনোমুগ্ধকর আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশী প্রথম আইডল খ্যাত মং উচিং মারমা মং কে গত ২৭ ডিসেম্বর গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। আর এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মাতালেন আইডল শিল্পীরা। বান্দরবান স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত পার্বত্য জেলা পরিষদ, জেলা প্রশাসন, পৌরসভা ও সেনা রিজিয়নের আয়োজনে এই গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, জেলা প্রশাসক কে.এম তরিকুল ইসলাম, পুলিশ সুপার দেবদাস ভট্টাচার্য, পৌর মেয়র জাবেদ রেজাসহ আরো অনেকে। বিকেলে গণসংবর্ধনায় মং, আরিফ, মন্টি, পঙ্কজসহ বাংলাদেশী আইডলের ১২ শিল্পীকে ঢাকা থেকে বিশেষ হেলিকপ্টার যোগে নিয়ে আসা হয়। বাংলাদেশী আইডল আয়োজন শেষ হওয়ার পর এই প্রথম বান্দরবান পার্বত্য জেলায় মংকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়। এসময় পুষ্পস্তবক দিয়ে মং এর সাথে আগত আইডলদের সবাইকে বরণ করা হয়। অনুষ্ঠানটি এস এ টেলিভিশন সরাসরি সম্প্রচার করে।


সন্ধ্যায় বান্দরবান স্টেডিয়ামে বাংলাদেশী আইডলের ১২ শিল্পী একে একে তাদের জনপ্রিয় গানগুলো পরিবেশন করেন, মাতিয়ে তোলেন হাজার হাজার দর্শকদের। সন্ধ্যা থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত তাদের সুরের মুর্ছনা ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে, দর্শকরা ভাসে আনন্দের জোয়ারে। বান্দরবান জেলায় দেশের প্রতিষ্ঠিত শিল্পীদের নিয়ে প্রথম এই আয়োজন হওয়ার কারনে পাহাড়ের প্রচ- শীত উপেক্ষা করে দর্শক ও আইডল ভক্তদের ব্যাপক উপস্থিতির কারনে তাদের সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়েছে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের। রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও কক্সবাজার থেকে আইডল ভক্তরা যোগ দেয় এই আয়োজনে।


প্রসঙ্গক্রমে, গত ১৪ ডিসেম্বর রাতে ঢাকার বিএফডিসিতে অনুষ্ঠিত এক জমকালো গ্র্যা- ফিনালে বিচারক এবং দর্শকের রায়ে সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে বান্দরবানের আদিবাসী সন্তান মং সেরা নির্বাচিত হন, জিতে নেন গাড়ি, বাড়িসহ কোটি টাকার পুরস্কার। আইডলে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন ঢাকার প্রতিযোগী আরিফ এবং তৃতীয় সিলেটের মন্টি।
বান্দরবান শহরের উজানিপাড়া এলাকার সাঙ্গু নদীর তীর ঘেঁষে মং উচিং মারমা মং’র বাড়ি। তার বাবা মংচনু মার্মা বান্দরবান সরকারি কলেজের চতর্থ শ্রেনীর একজন কর্মচারী।