২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ৬ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০১৭ইংরেজী
মঙ্গলবার, 07 জানুয়ারী 2014 00:14

ইংরেজী বর্ষপঞ্জি সন নয়, খৃষ্টাব্দ

লিখেছেনঃ শ্যামল চৌধুরী বড়ুয়া

বিশ্বব্যাপী বহুল ব্যবহৃত খৃষ্টীয় সনের বর্ষ শুরু হয় জানুয়ারি এখন থেকে দুহাজার আট বছর আগে রোমানদের বর্ষপঞ্জিতে দিন সংখ্যা ছিল ৩৫৫ যা প্রকারান্তরে চান্দ্রবর্ষের সমান তখন রোমানদের নববর্ষ শুরু হত মার্চ এখন ডিসেম্বর মাস রোমান বর্ষপঞ্জির শেষ মাস হলেও প্রাচীন রোমান শব্দ নভেম্বর এবং ডিসেম্বর মাসের অর্থ যথাক্রমে নমব দশম মাস রোমান সম্রাট জুলিয়াস সিজার খৃষ্টপূর্ব ৪৬ অব্দে মিশর দেশ জয় করে মিশরীয়দের মধ্যে প্রচলিত সৌরবর্ষের প্রকৃত দিন সংখ্যা (৩৬৫ দিন ঘন্টা) সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান লাভ করেন তিনি মিশরীয় পন্ডিত সোসিজেনীসের পরামর্শ অনুযায়ী রোমান বর্ষপঞ্জির ব্যাপক সংস্কার করেন এবং সৌরবর্ষ পঞ্জিকা চালু করেন তখন থেকে বর্ষপঞ্জিতে মার্চের পরিবর্তে জানুয়ারীতে নববর্ষ প্রচলন হয় খৃষ্টাব্দের সংখ্যাকে দিয়ে ভাগ করলে যদি মিলে যায়, তবে সে বছর ফ্রেব্রয়ারী মাস ২৮ দিনের পরিবর্তে ২৯ দিন হবে তবে শতাব্দীর বেলায় ৪০০ দিয়ে ভাগ করলে মিলে গেলে সে বছর ফেব্রয়ারী মাস ২৯ দিন হবে নিয়মকেলীপ ইয়ারবলা হয় পোপ গ্রেগরীর বর্ষপঞ্জি সংস্কারের পর থেকে রোমান বর্ষপঞ্জি পন্ডিতদের কাছে গ্রেগরীয়ান বর্ষপঞ্জি হিসাবে খ্যাত হয়েছে কিন্তু সংস্কার মানুষ সহজে মেনে নেয়নি ইউরোপের দেশে দেশে নিয়ে চলছিল দীর্ঘদিনের বাদ-প্রতিবাদ তদুপরি খৃষ্টানদের রোমেরক্যাথলিকবনামপ্রোটেসটেন্টবিরোধের কারণে গ্রেগরীয়ান সংস্কার গ্রহণে নতুন মাত্রা যুক্ত হয়েছিল অবশেষে ১৭৫২ সালে ইংল্যান্ডে ১৯১২ সালে চীনে আলবেনিয়াতে, ১৯১৮ সালে রাশিয়াতে ১৯২৭ সালে তুরস্কে সরকারীভাবে গ্রেগরীয়ান বর্ষপঞ্জি গৃহীত হয় যীশুখৃষ্টের নামের সঙ্গে রোমানদের ধারাবাহিক বর্ষ গণনা বা খৃষ্টাব্দ অপেক্ষাকৃত পরবর্তীকালের সংযোজন যীশুখৃষ্টের মৃত্যুর ৭৫০ বছর পরে রোমেন খৃষ্টান পাদ্রীগণ ধারাবাহিক বর্ষ হিসাবে যীশুর স্মরণে পশ্চাদ গণনার মাধ্যমে খৃষ্টাব্দ চালু করেন প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী যীশুর জন্ম বর্ষকে স্মরণীয় করে রাখার জন্যখৃষ্টাব্দচালু হয়েছে সে হিসাবে বলা চলে যীশুখৃষ্টের জন্ম হয়েছিল ২০০৪ বছর আগে আসলে কিন্তু তা নয় যীশুর জন্ম বর্ষ পাবার জন্য প্রচলিত খৃষ্টাব্দের সঙ্গে আও বছর যোগ করতে হবে সম্ভবত তাঁর মৃত্যুবরণের ৭৫০ বছর পরেখৃষ্টাব্দচালু করার সময় রোমান পাদ্রীগণ প্রকৃত তথ্য খুঁজে পেতে ভুল করেছিলেন তাছাড়া মহাপুরুষের প্রকৃত জন্মদিন বা তারিখ সম্পর্কেও বিভ্রান্তি রয়েছে আজকাল সারা বিশ্বব্যাপী ২৫ ডিসেম্বর যীশুর জন্মদিন বা বড়দিন পালিত হয় এক সময়ে খৃষ্টান পাদ্রীগণ জানুয়ারী মাসে যীশুর জন্মদিন পালন করতেন, তারও আগে ২০ মে তারিখ জন্মদিন উদ্যাপিত হত

জানুয়ারী রোমান বর্ষপঞ্জির নববর্ষ; এদিনে খৃষ্টীয় সনের খৃষ্টাব্দের নববর্ষ শুরু হয় কমবেশী সারাবিশ্বে দিবসটির একটি আবেদন রয়েছে আমরা জানুয়ারী থেকে নতুন ক্যালেন্ডার ব্যবহার করি আমাদের দেশে রোমান বর্ষপঞ্জিকে তথা খৃষ্টীয় সনকে ইংরেজি বর্ষপঞ্জি তথা ইংরেজি সন বলার প্রবণতা দেখা যায় অনেকেই জানুয়ারিকে ইংরেজী নববর্ষ হিসাবে চিহ্নিত করেন অথচ ইংরেজী বর্ষপঞ্জি বা ইংরেজী সন বলতে আদৌ কোনো কিছু নেই

তথ্য সহায়ক : ইন্টারনেট, রিডার্স ডাইজেস্ট

পরিচিতিসংস্কৃতিকর্মী প্রাবন্ধিক, সম্পাদক প্রকাশক-‘অমিতাভ’ (সমাজ সাহিত্য সংস্কৃতি বিষয়ক পত্রিকা)