২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ৯ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শুক্রবার, ২৩ জুন ২০১৭ইংরেজী

প্রাচ্যের ইতিহাস ও ঐতিহ্য

ইতিহাস ও বৌদ্ধ ঐতিহ্যের অন্বেষায় ‘বড়ুয়া’ : কিছু পর্যালোচনা

ইতিহাস ও বৌদ্ধ ঐতিহ্যের অন্বেষায় ‘বড়ুয়া’ : কিছু পর্যালোচনা ‘বড়ুয়া’ বর্তমান বাংলাদেশের ক্ষুদ্র জাতি সত্ত্বার একটি সুপরিচিত নাম। এদেশে বসবাসকারী বাঙ্গালি বৌদ্ধরাই ‘বড়ুয়া’ নামে অভিহিত। ইতিহাস সূত্রে এটা সুনির্দিষ্টরূপে প্রমাণিত যে, বাঙ্গালী বড়ুয়া বৌদ্ধরা এদেশের আদি বাসিন্দা। এই বড়ুয়া বৌদ্ধরা ক্ষুদ্র জাতি সত্ত্বায় বর্তমানে বিদ্যমান থাকলেও তাদের রয়েছে অতি সমৃদ্ধ গৌরবনীয় ইতিহাস প্রসিদ্ধ পরিচয়। আমি নিজেও এই গৌবরনীয় জাতির একজন, তথাপি বিভিন্ন সময়ে নিজের মনের মধ্যে উৎপন্ন নানা অনুসন্ধিৎসু প্রশ্নের…

সম্রাট অশোক পুত্র অর্হৎ মাহেন্দ্র

সম্রাট অশোক পুত্র অর্হৎ মাহেন্দ্র আজকের দিনে আমাদের মহাকরুনিক তথাগত সম্যক সম্বুদ্ধ শ্রাবস্থীতে প্রথম ধর্মদেশনা করেছিলেন। এবং মগধের সম্রাট অশোকের (ধর্মাশোক) একমাত্র জৈষ্ঠ্য পুত্র অর্হৎ মাহেন্দ্র স্থবির বৌদ্ধ ধর্মের প্রচার ও প্রসারে (সিংহল দ্বীপে) বর্তমানে শ্রীলংকায় গমন করেছিলেন। অনুরাধাপুর হল  (সিংহল) বর্তমান শ্রীলংকার পুরানো রাজধানী। মূলত দেশটিতে অনুরাধাপুর নামক স্থান থেকেই নতুন করে পুনজাগরণ হয়েছিল বৌদ্ধধর্মের। বৌদ্ধধর্মের প্রচারে অশোকপুত্র অর্হৎ মাহেন্দ্র স্থবির খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতকে অনুরাধাপুরের মিহিনতালা নামক স্থানে নতুন…

বৈদিক পূর্ব বৌদ্ধধর্ম আলোয় আলো

বৈদিক পূর্ব বৌদ্ধধর্ম আলোয় আলো ভারতে ব্রাহ্মনদের ধর্ম এবং রাজনীতি মানুষ জাতিকে অপমান করার ফলে আজ ২৫ কোটি দলিত জনতা মানবাধিকারের জন্যে যুদ্ধ করে বেঁচে আছেন।  হিন্দু শাসক ও পন্ডিতগণ বৌদ্ধধর্মকে হিন্দুধর্ম বানিয়ে মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘনের  মাধ্যমে ক্ষত্রিয় ও ব্রাহ্মনকে ভারতীয় সমাজে উপরে রেখে নর নারায়নকে দলিত অস্পৃশ্য জাতিবাদের মিথ্যা বেসাতিতে মানবতাকে তিলে তিলে অপমান করে চলেছে। মানব শিশুর অপমানে কোন ধর্মই নেই। প্রসঙ্গত: ২০১৩ সালের ৭ জুলাই বুদ্ধগয়ার  মহাবোধি…

নববর্ষে বঙ্গাব্দের হিজরি সাল প্রসঙ্গ

নববর্ষে বঙ্গাব্দের হিজরি সাল প্রসঙ্গ বঙ্গাব্দে  বাঙালি ঐতিহ্য নেই।  বাংলা নববর্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা জানাতে বঙ্গাব্দের ইতিকথা মনে পড়ে গেল যে, “ বাংলা ভাষা আন্দেলনের আলোকে  চর্যাপদের বুদ্ধাব্দ কে বাদ দিয়ে হিজরি (১৪৩৫) সাল থেকে  বঙ্গাব্দের উৎপত্তি কেন ?ৃ” আজকের বঙ্গাব্দই হিন্দুরাজনীতির মহাভারতীয ষড়যন্ত্র এবং এইভাবে ১২০২ সালে বাংলাদেশের পুরানো বৌদ্ধগণ বেঁচে থাকার জন্যে বাধ্য হয়ে  সেন বাংলার প্রাচীন বৌদ্ধগণ মুসলমান হয়েছিলেন।   জনতার প্রশ্ন :  বিশ্ব বিজয়ী বাঙালি চর্যাপদের বুদ্ধাব্দ কে…

অশোকের “কলিঙ্গানুশাসন”

অশোকের “কলিঙ্গানুশাসন” দীর্ঘদিন ধরে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের লাদাখ (যাকে ‘মিনি তিব্বত’ নামে অভিহিত করা হয়) ভ্রমণের ইচ্ছে পোষণ করে আসছিলাম। কিন্তু নানা কারণে হয়ে উঠেনি। অবশেষে জীবনের প্রায় শেষ প্রান্তে এসে, সাহস করে,  লাদাখ ভ্রমণের দুরূহ যাত্রায়, বের হয়ে পড়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি । এই উদ্দেশ্যে,  বাংলাদেশের  ঢাকা থেকে কোলকাতার কয়েকটি ভ্রমণ-সংস্থার সাথে টেলিফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করি। তাদের মধ্যে লেনিন সরনিতে অবস্থিত ‘প্যান-ওয়েস’ নামক একটি ভ্রমণ-সংস্থার ভ্রমণের সময়,…

নালন্দার ধ্বংস বনাম ধর্মীয় বিজয়

নালন্দার ধ্বংস বনাম ধর্মীয় বিজয় উপমহাদেশের ইতিহাস বিশাল বৈচিত্রে ভরপুর। এখানে রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন জাতি গোষ্ঠি ধর্মের নানা মুখি সংঘাত ও সংমিশ্রণের ইতিহাস, একই সাথে আছে শিক্ষা সভ্যতার প্রগতি ও বিলয়ে ভরা ইতিহাস।মধ্য যুগে এই ইতিহাস রচনায় কান্ডারি ছিলেন বৌদ্ধ নৃপতি গণ। সংসার ত্যাগী বুদ্ধ মতবাদের প্রচার প্রসার ও পৃষ্ঠপোষকতা করতে গিয়ে তারা রাজ্য জুড়ে স্থাপন করেছেন অসংখ্য বৌদ্ধ বিহার। এই সব বিহার থেকে কিছু কিছু বিহার পরে অবাধ জ্ঞান…

পাল যুগ : বৌদ্ধ বিহারকেন্দ্রিক শিক্ষাব্যবস্থা

পাল যুগ: বৌদ্ধ বিহারকেন্দ্রিক শিক্ষাব্যবস্থা পাল আমলে বাংলার বিভিন্ন স্থানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠে। পাল রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এই ধর্মীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো গড়ে উঠলেও মূলত এখানে চর্চা হয়েছে দর্শন ও বিজ্ঞানের। প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আদলে তৈরি করা বিহার নামে পরিচিত এসব বৌদ্ধ মঠই প্রাচীন বাংলার শিক্ষাকেন্দ্র হিসেবে কাজ করেছে। বৌদ্ধ ধর্মের শাস্ত্রীয় শিক্ষার পাশাপাশি এখানে ব্যাকরণ, শব্দবিদ্যা, হেতুবিদ্যা, চিকিৎসাবিদ্যা, চর্তুবেদ, সংখ্যা, সংগীত ও চিত্রকলা শিক্ষা দেওয়া হতো। এ ছাড়া এসব বিহারকেন্দ্রিক শিক্ষায়তনে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা…

মায়ানমারের সোয়েডাগন প্যাগোডাঃ ইতিহাস ও ঐতিহ্যের নান্দনিক সমাহার

মায়ানমারের সোয়েডাগন প্যাগোডাঃ ইতিহাস ও ঐতিহ্যের নান্দনিক সমাহার মায়ানমারের সোয়েডাগন প্যাগোডায় পূজিত হচ্ছে গৌতম বুদ্ধের কেশ ধাতু সোয়েডাগন প্যাগোডা এটি গ্রেড ডাগন এবং গোল্ডেন প্যাগোডা নামেও পরিচিত। এটি মায়ানমারের ইয়াঙ্গুন শহরে প্রতিষ্ঠিত। মহাকারুণিক গৌতম বুদ্ধ বুদ্ধত্ব লাভের সপ্তম সপ্তাহের শেষ দিন তপস্সু ও ভল্লিক নামে দু'জন মধুবণিক মধু ও মধু পিষ্ঠক দিয়ে বুদ্ধকে পূজা করেছিলেন। এ দু’জন ছিলেন বুদ্ধের প্রথম দ্বিবাচিক গৃহী উপাসক। পন্ডিতগণের অনেকে মনে করেন তাঁরা ছিলেন উরিষ্যার…

নালন্দার ধ্বংস ধর্মান্ধদের চোখে ধর্মীয় বিজয়

নালন্দার ধ্বংস ধর্মান্ধদের চোখে ধর্মীয় বিজয় “নালন্দা” শব্দটি এসেছে “নালম” এবং “দা” থেকে। “নালম” শব্দের অর্থ পদ্ম ফুল যা জ্ঞানের প্রতীক রূপে প্রকাশ করা হয়েছে আর “দা” দিয়ে বুঝানো হয়েছে দান করা। তার মানে “নালন্দা” শব্দের অর্থ দাঁড়ায় “জ্ঞান দানকারী”, প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ৮০০ বছর ধরে জ্ঞান বিতরনের মত দুরূহ কাজটি করে গেছে নিরলসভাবে। এই বিশ্ববিদ্যালয়টির অবস্থান ভারতের বিহার রাজ্যের রাজধানী পাটনা থেকে ৫৫ মাইল দক্ষিণ পূর্ব দিকে অবস্থিত “বড়গাঁও” গ্রামের…

মহামুনি বুদ্ধ মূর্তির ইতিহাসঃ বুদ্ধের জীবিত অবস্থায় বানানো ৫ম বুদ্ধ মূর্তি

বার্মায় যে কটি বুদ্ধ মূর্তি রয়েছে তার মধ্যে মহামুনিবুদ্ধ এবং মুন অং মাইন (Mahamuni Buddha and MunAung Myin Buddha) অন্যতম। উল্লেখ্য মুন অং মাইনমুর্তিটি ইংল্যান্ডের রানী ভিক্টোরিয়া ভারতে আগুনের মাধ্যমে গলাতে ব্যর্থ হয়ে বার্মায়ফেরত দেন। আর মহামুনি বুদ্ধকে ধনাবতী নগর থেকে নিয়ে বিভিন্ন যায়গায় নিয়ে যাওয়ার কারণেনাকি বার্মার উপর অভিশাপ পরে। যার কারণে এই দেশটি এখনো গরীব হয়ে রয়েছে। আমাদের আজকেরআলোচনা মহামুনি বুদ্ধ নিয়ে।বার্মার মান্ডালায়ে অবস্থিত মহামুনি প্যাগোডা বিশ্বের অন্যতমসুন্দর…

বিক্রমপুর বৌদ্ধ বিহারের খননকাজ অব্যাহত

জ্ঞানতাপস অতীশ দীপঙ্করের জন্মভূমি মুন্সিগঞ্জের রামপাল ইউনিয়নের রঘুরামপুরে আবিষ্কৃত ‘বিক্রমপুরি বৌদ্ধবিহার’-এর খনন ও সংরক্ষণকাজ চতুর্থ দফায় অর্থাৎ চতুর্থ বছরে অব্যাহত রয়েছে। বিহারটির প্রাচীন কাঠামো ঠিক রেখে এর সংস্কারকাজ করছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও প্রাক্তন ছাত্রদের নিয়ে গঠিত ঐতিহ্য অন্বেষণের গবেষকেরা। গত বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা যায়, ঐতিহ্য অন্বেষণের তিন সদস্যের একটি দল বিহারটির সংরক্ষণকাজে ব্যস্ত। তাদের সঙ্গে রয়েছেন ছয়জন রাজমিস্ত্রি ও ২২ জন জোগালি। অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব…

বৌদ্ধবিহারের সন্ধান মিলল পশ্চিম মেদিনীপুরের মোগলমারিতে

একটি নয়, দু’টি বৌদ্ধবিহারের সন্ধান মিলল পশ্চিম মেদিনীপুরের মোগলমারিতে। দু’টি বৌদ্ধবিহার মুখোমুখি। দু’টিই ষষ্ঠ শতকের। একটির নাম পড়া গিয়েছে, বন্দক। অন্যটির নাম পড়ার চেষ্টা চলছে। হিউয়েন সাং বা জুয়ান জ্যাং কথিত বৌদ্ধবিহারগুলির মধ্যে এই দু’টি নবতম আবিষ্কার। পশ্চিম মেদিনীপুরের মোগলমারি প্রত্নস্থলে সম্প্রতি উৎখনন করে এই দু’টি বিহারের সন্ধান পেয়েছেন পুরাতত্ত্ববিদেরা। রাজ্য পুরাতত্ত্ব দফতরের উপ অধিকর্তা অমল রায় বলেন, “পুব ও পশ্চিম দিকে মুখোমুখি দু’টি বৌদ্ধ বিহার ছিল। দু’টিই সমসাময়িক।” সম্প্রতি…

থাইল্যান্ডের টাইগার টেম্পল

থাইল্যান্ডের টাইগার টেম্পল...বিষয়টি সত্যিই অবিশ্বাস্য। থাইল্যান্ডের কাঞ্চনাবুরি প্রদেশের সাইয়ক জেলা। মিয়ানমার সীমান্ত থেকে মাত্র ৩৮ কিঃ মিঃ উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত টাইগার টেম্পল যা আঞ্চলিক ভাষায় বলে ওয়াট ফা লুয়াং টা বুয়া। স্থানীয় ভাষায় ‘থেরাভাদা বৌদ্ধ মন্দির’ নামেও পরিচিত পশ্চিম থাইল্যান্ডের এই মন্দিরটি। সেখানে গেলে দেখা যায় বাঘ এবং মানুষের সখ্য। ১৯৯৪ সালে জঙ্গলের মন্দির হিসেবে আবিষ্কার করা হয় এ ধর্মীয় স্থানটি। বন্য জন্তুদের আবাসনের জন্য এটি একটি বিখ্যাত জায়গা। বিশেষত বিভিন্ন…

বার্মার সোয়েডাগুন প্যাগোডাঃ গৌতম বুদ্ধের কেশধাতু সংরক্ষিত

পৃথিবীতে দু'প্রকারের আয়ু সম্যক সম্বুদ্ধ দেখতে পায়।{১} দীর্ঘায়ু ও {২} সল্পায়ু সম্পন্ন বুদ্ধ।দীর্ঘায়ু সম্পন্ন বুদ্ধগণের আয়ু লক্ষ বছর /হাজার বছর।আর সল্পায়ু সম্পন্ন বুদ্ধের আয়ু ৮০ বছর।দীর্ঘায়ু সম্পন্ন বুদ্ধগণ পরিনির্বাপিত হলে দাহ কার্য্য সমাপনের পর অস্থিধাতু সমূহ জমাটবদ্ধ হয়ে সুবর্ণ চৈত্যের আকার ধারণ করে।বিভিন্ন অংশে বিভক্ত হয়না।উনাদের অস্থিধাতুগুলো পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানে বন্টিত হয় না।তবে কয়েকজন বুদ্ধের ক্ষেত্রে বৈসাদৃশ্য দেখা যায়।দীর্ঘায়ু সম্পন্ন বুদ্ধগণের অস্থিধাতু কেন বিভিন্ন অংশে বিভক্ত হয় না?কারণ হলো উনারা…

বৌদ্ধ ধর্ম প্রচারের ক্ষেত্রে মগধ রাজারদের অবদান

দুইটা প্রধান তথ্য দিয়ে লেখাটি শুরু করা যাক...যদি প্রশ্ন করা হয় কোন্ রাজা পৃথিবীতে সর্ব প্রথম বৌদ্ধ বিহার দান করেন?কোন্ রাজার পৃষ্টপোষকতায় প্রথম বৌদ্ধ সংঘায়ন আয়োজিত হয়?উত্তর হলো মগধের রাজা বিম্ব্বিসার ও অজাতশত্রু (পিতা এবং পুত্র)। কুমার সিদ্ধার্থ গৃহ থেকে মহাভিনিষ্ক্রমণের পর অষ্টম দিবসে মগধের রাজগৃহে দ্বারে দ্বারে পিন্ডচারণ করতে লাগলেন।জনসাধারণ সিদ্ধার্থের জ্যোতির্ময় কায়া দেখে দ্বিধা-দ্বন্ধে পরে গেলেন।বলতে লাগলেন উনি কি মানব,নাকি দেবতা-নাগ কোনটা?এ সংবাদ বিম্ব্বিসারের কর্ণ গোচর হলে রাজা…