২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ১২ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ সোমবার, ২৬ জুন ২০১৭ইংরেজী

বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্য

"হাড়িপা পুংগ্রী গোষ্ঠীর" ৪র্থ সম্মেলনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত

"হাড়িপা পুংগ্রী গোষ্ঠীর" ৪র্থ সম্মেলনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত "হাড়িপা” যার অপভ্রংশরুপ আরিয় পা বা আর্য পা। বাংলা ভাষার আদি নিদর্শন “চর্যাপদ” রচয়িতাদের মধ্যে অন্যতম পুণ্যপুরুষ "হাড়িপা” পুংগ্রী। যাঁর সতত রক্তের ধারা এখনো চট্টগ্রামসহ বাংলাদেশ তথা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রবহমান। "হাড়িপা পুংগ্রী গোষ্ঠীর" ৪র্থ সম্মেলন করার প্রয়াসে গত ৬ জুন ২০১৬ইং সোমবার ডাঃ মনোজ কুমার বড়ুয়ার মেহেদীবাগস্থ চেম্বারে এক প্রাক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৌদ্ধ জাতির আদি জনগোষ্ঠী যাদেরই রক্ত বহন…

রামু এখন আরো দর্শনীয়, বাড়ছে দর্শনার্থীর ভিড়

রামু এখন আরো দর্শনীয়, বাড়ছে দর্শনার্থীর ভিড় প্রাচীন ঐতিহাসিক নিদর্শনের পাশাপাশি আধুনিক স্থাপত্য শৈলীতে তৈরী নতুন নতুন বৌদ্ধ বিহার নিয়ে রামু এখন হয়ে ওঠেছে আরো বেশী দর্শনীয় স্থান। তাই কক্সবাজারের পাশাপাশি পর্যটকদের ভীড় বেড়েছে রামুতেও। এবারের ঈদের ছুটিতে কক্সবাজার ভ্রমণে আসা পর্যটকেরা ভ্রমণে বৈচিত্রতা পেতে ছুঠে এসেছিল রামুতে। রামু যেতে হলে কক্সবাজার আসার পথে রামু বাইপাসে আপনাকে নামতে হবে। ওখানেই রাস্তার দু’পাশে সারি সারি ঝাউগাছ রামুর হয়ে আপনাকে স্বাগত জানাবে…

জাগো জাগো চলো মঙ্গলপথে, বর্ষবরণের দিনে

জাগো জাগো চলো মংগলপথে, বর্ষবরণের দিনে জাগো উজ্জ্বল পুণ্যে, জাগো নিশ্চল আশেজাগো নিঃসীম শূন্যে, পূর্ণের বাহুপাশেজাগো নির্ভয় ধামে, জাগো সংগ্রাম সাজেজাগো ব্রক্ষ্মের নামে, জাগো কল্যাণ কাজে।মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা ——- নববর্ষের নব প্রভাত যা কিছু গ্লানি, জীর্ণ-শীর্ণ-বিদীর্ণ, পুরাতন জরাগ্রস্থ সব বৈশাখের রুদ্র দহনে পুড়ে অঙ্গার হোক, সকল না পাওয়ার বেদনাকে পিছনে ফেলে প্রকৃতিকে অগ্নিস্নানে শুচি ও শুদ্ধ করে তুলতেই আবহমান কাল থেকে বাঙালির জাতীয়…

বাংলা নববর্ষ ও বৌদ্ধধর্ম

বাংলা নববর্ষ ও বৌদ্ধধর্ম ভারতীয় উপমহাদেশের বৌদ্ধ অঞ্চলেই মুলতঃ বাংলাসনের ঐতিহ্যের সাথে সম্পৃক্ত বা বৌদ্ধ ঐতিহ্যের শেকড়ে আবদ্ধ অঞ্চলগুলোর সাল গণনা প্রায় এক। সে হিসেবে নেপাল হতে বৃহত্তর বাংলা ও ভারতের বিশাল এলাকা হয়ে শ্রীলংকা পর্যন্ত এই একই নিয়মে সাল গণনা হয়ে আসছে। শুধু ভারতীয় উপমহাদেশ নয় দক্ষিন-পূর্ব এশিয়ার মায়ানমার, থাইল্যান্ড, লাওস, কম্বোডিয়া বা ভিয়েতনাম যেখানেই বৌদ্ধধর্ম বিশেষ করে থেরবাদী বৌদ্ধধর্ম পালন করা হয় সেসব দেশের নব বর্ষের সাথে বৌদ্ধধর্মের…

বৈসাবি উৎসবে সেজেছে বান্দরবান মৈত্রীময় স্নিগ্ধ ছোঁয়ায়

বৈসাবি উৎসবে সেজেছে বান্দরবান মৈত্রীময় স্নিগ্ধ ছোঁয়ায় পুরাতন বছরকে বিদায় ও নতুন বছরকে বরণ করতে বাংলা চৈত্র সংক্রান্তিতে নতুন সাজে সেজেছে বান্দরবান। পাড়া মহল্লায় পড়েছে সাজ সাজ রব। পাহাড়ে চলছে নানা আনন্দ আয়োজন। উৎসবে মেতে উঠেছে পাহাড়ের সকল সম্প্রদায়ের জনগোষ্ঠী। “নতুন আশা আজ নব-প্রভাতে; শিশু-নারীসহ সকলে থাকুক শান্তিতে বন্ধ হোক যত সহিংসতা; মৈত্রীময় স্নিগ্ধ ছোঁয়ায় আসুক শুভ্রতা” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবানের পাহাড়ীদের প্রধান সামাজিক উৎসব সাংগ্রাই আগামী ১২ এপ্রিল…

বর্ষ বরণে ঐতিহাসিক মহামুনি মন্দির প্রাঙ্গণে মহা আয়োজন

বর্ষ বরণে ঐতিহাসিক মহামুনি মন্দির প্রাঙ্গণে মহা আয়োজন ঐতিহাসিক প্রাচীন নিদর্শন মহামুনি বিহার প্রাঙ্গনে হাজার বছরের চিরায়ত বাঙ্গালীর ঐতিহ্য পহেলা বৈশাখে নতুন বছরকে বরণ করে নিতে প্রতিবারের ন্যায় এবারও রয়েছে চৈত্র সংক্রন্তি ও বৈশাখী মেলাসহ নানা আয়োজন।মহামুনি বটমূল খ্যাত ‘ফনীতটি মঞ্চে’ মহামুনি গ্রামের বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও প্রকাশনা সংস্থা বিশেষ করে মহামুনি সংস্কৃতি সংঘ, মহামুনি তরুণ সংঘ ও ত্রৈমাসিক জ্ঞানালোর উদ্যোগে বর্ষবরণ উপলক্ষে পহেলা বৈশাখ থেকে শুরু সপ্তাহব্যাপী আলোচনা…

বাংলা সাহিত্যে মুক্তিযুদ্ধ : অধ্যাপক বাদল বরণ বড়ুয়া

বাংলা সাহিত্যে মুক্তিযুদ্ধ : অধ্যাপক বাদল বরণ বড়ুয়া ॥ নাটক ॥বাংলা সাহিত্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নানাভাবে প্রতিফলিত হয়েছে- নাটকে, কবিতায় ছড়ায় গানে, ছোটগল্পে উপন্যাসে, প্রবন্ধে-নিবন্ধে রোজনামচায় ধৃত স্মৃতিকথায়, ইতিহাসের ধারাবাহিক গবেষণায় কতরূপেই না এর প্রকাশ হয়েছে।মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কেন্দ্র উৎস হলো: যুগে যুগে অবদমিত বাঙ্গালী জাতিসত্তার নির্দ্বিধ উজ্জীবনের মাধ্যমে শোষণমুক্ত সুখীসুন্দর অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠা। এক কথায় সোনার বাংলা গড়ার এক আপোষহীন স্বপ্ন-এ স্বপ্ন দেখেছেন এবং জাতিকে দেখিয়েছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু…

প্রবারণায় জাহাজ ভাসা উৎসব কেন

প্রবারণায় জাহাজ ভাসা উৎসব কেন প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু বুদ্ধের সময় বৈশালী ছিল এক সমৃদ্ধ নগরী। এক প্রতাপশালী রাজবংশ বৈশালীকে শাসন করতেন। কথিত আছে যে, ক্ষত্রিয় বংশের সাত হাজার সাতশত সাত জন রাজা বৈশালীকে ক্রমান্বয়ে শাসন করেছিলেন। ধন ধান্যে পরিপূর্ণ বৈশালীতে হিংসাত্নক তান্ডব, বাদ-বিসংবাদ বলতে কিছুই ছিল না। রাজা, প্রজা, রাজ্য রাজত্ব যেন একই সুতোয় গাঁথা। হঠাৎ উক্ত রাজ্যে ত্রিবিদ উপদ্রব দেখা দিল। দুর্ভিক্ষ, মহামারি ও অমনুষ্যের উপদ্রবে রাজ্যের মানুষ দুর্বিসহ জীবনের…

পর্যটনের নতুন সম্ভাবনা বৌদ্ধধর্মীয় স্থান

পর্যটনের নতুন সম্ভাবনা বৌদ্ধধর্মীয় স্থান বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে থাকা বৌদ্ধধর্মীয় ঐতিহ্যপূর্ণ স্থানে পর্যটনের প্রসার ঘটাতে নতুন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সরকারি ও বেসরকারি সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, পর্যটন থেকে এখন গড়পড়তা আয় হয় বার্ষিক সাড়ে পাঁচ শ কোটি টাকার বেশি। তবে বৌদ্ধধর্মীয় স্থানে পর্যটন শুরু হলে আগামী পাঁচ বছরে কেবল এই খাত থেকে বছরে ছয় শ কোটি টাকা আয় হবে। ‘বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট হেরিটেজ সাইটস ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড মার্কেটিং’ শীর্ষক এক গবেষণায় এই সম্ভাবনার…

ভাঙ্গনের মুখে শান্তিময় বিহারসহ গহিরার বড়ুয়া পাড়া

ভাঙ্গনের মুখে শান্তিময় বিহারসহ গহিরার বড়ুয়া পাড়া জাহেদুল আলম, দৈনিক পূর্বকোণঃ মৎস্য প্রজননের ভান্ডার হলেও হালদা নদী রাউজান পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের পশ্চিম গহিরার বড়ুয়াপাড়াবাসীর জন্যে দুঃখ দীর্ঘদিনের। সেই দুঃখের পরিমাণ যতই দিন যাচ্ছে ততই বাড়ছে। এলাকার শতশত মানুষের এই দুঃখের নাম নদী ভাঙ্গন। হালদা নদীর করাল গ্রাসে (সর্তারঘাট থেকে বড়ুয়া পাড়া পর্যন্ত নদীর বাম তীরের এক কিলোমিটার অংশ) গত এক-দেড় দশকে কয়েকশ একর আবাদী অনাবাদীর অস্তিত্ব হারিয়ে গেছে। বড়ুয়া পাড়া…

১২শ বর্ষী মন্দিরে হিন্দু-বৌদ্ধ নিদর্শন : বৌদ্ধ মন্দিরকে হিন্দু মন্দিরে রূপান্তরিত করার নির্দশন

১২শ বর্ষী মন্দিরে হিন্দু-বৌদ্ধ নিদর্শন : বৌদ্ধ মন্দিরকে হিন্দু মন্দিরে রূপান্তরিত করার নির্দশন দিনাজপুরে মাটির ঢিবি খনন করে বৌদ্ধ মন্দিরকে হিন্দু মন্দিরে রূপান্তর করার প্রথম প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন আবিষ্কার করেছেন একদল গবেষক। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক স্বাধীন সেনের নেতৃত্বে আবিষ্কৃত এই মন্দির তৎকালীন বরেন্দ্র অঞ্চলে বৌদ্ধ ধর্ম চর্চার ওপর পরবর্তীকালের হিন্দু শাসকদের রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আধিপত্যের সরাসরি নিদর্শন বলে ধারণা করা হচ্ছে।  খননকারীরা বলছেন, মন্দির দুটির নির্মাণকাল ৮ম থেকে ১১শ শতকের কোনো…

পুণ্যস্নানে রাখাইনদের নতুন বছর আবাহন : বৈসাবি'র আনন্দে ভাসছে পাহাড়ি জনপথ

পুণ্যস্নানে রাখাইনদের নতুন বছর আবাহন : বৈসাবি'র আনন্দে ভাসছে পাহাড়ি জনপথ দুই পক্ষের মধ্যে ব্যবধান মাত্র কয়েক ফুট। মাঝে একটি বাঁশ দিয়ে কৃত্রিম প্রতিবন্ধকতা। ড্রামে রাখা জল নিয়ে এক পক্ষ আরেক পক্ষের দিকে ছুঁড়ে মারছে। জল ছুঁড়ছেন তরুণরা, হেসে জবাব দিচ্ছেন তরুণীরা। আবার তরুণীদের ছোঁড়া জলে ভিজে একাকার হচ্ছেন তরুণরাও। দুই দলই কাকভেজা। বছরের একদিন আনন্দে ভেজা এদিন। উৎসবে মেতে ওঠা এ স্নানের নাম জলকেলি। পুরনো দিনের পাপ, কালিমা মোচন…

মুক্তিযুদ্ধে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের অবদান চিরস্মরণীয়

মুক্তিযুদ্ধে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের অবদান চিরস্মরণীয় ডিসেম্বর মাস বিজয়ের মাস। ১৬ই ডিসেম্বর বিজয় দিবস।’৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ বাংগালীদের জন্য স্মরণীয় এবং ত্যাগের মহিমায় মহিমান্বিত একটা ঘটনা। লাখো শহীদের আত্মত্যাগ ও লাখো মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত হয় সবুজের মাঝে রক্ত সূর্যখচিত একটি পতাকা, একটি স্বাধীন সার্বভেৌম দেশ বাংলাদেশ।তাই মুক্তিযুদ্ধ আমাদের গর্ব, আমাদের প্রেরণার উৎস।একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে বৌদ্ধ ভিক্ষুরা প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে কাজ করে গেছেন।যাদের জন্য আজ আমরা গর্বিত এবং অনুপ্রাণিত। প্রয়াত মহাসংঘনায়ক…

বাংলা সাহিত্যে বৌদ্ধচর্চার পটভূমি ও প্রাসঙ্গিক তথ্য

বাংলা সাহিত্যে বৌদ্ধচর্চার পটভূমি ও প্রাসঙ্গিক তথ্য (পূর্ব প্রকাশিতের পর) বাঙলা ও বাঙালির ইতিহাস সু-প্রাচীন। সে ইতিহাস কত বছরের পুরাণো তা নিয়ে পণ্ডিতদের মধ্যে মতভেদ ও বিস্তর। এ বিচারে বাংলাগানের ইতিহাসের সুপ্রাচীনত্ব নিয়েও মতভেদের অন্ত নেই। শাস্ত্রী মহোদয়ের চর্যাপদ আবিষ্কারের ফলে গবেষকেরা এ বিষয়ে একটি সুনির্দ্দিষ্ট গাইড লাইন পেয়েছিলেন। এ প্রসঙ্গে গবেষক ও সাংবাদিক অরুণদাশ গুপ্ত বলেন- “হাজার বছরের পুরাণ বাংলা ভাষায় বৌদ্ধগান ও দোহা’র নামক গ্রন্থটি প্রকাশিত হবার পর…

ভারতবর্ষে বৌদ্ধধর্মের প্রসার ও বিলুপ্তির ইতিহাস

ভারতবর্ষে বৌদ্ধধর্মের প্রসার ও বিলুপ্তির ইতিহাস মধ্যযুগে সমতটে বৌদ্ধধর্মের যে বিকাশ ও প্রসার ঘটেছিল সে ইতিহাস আজও অনেকটা তমসাচ্ছন্ন। এর মূল কারণ হল এতদঅঞ্চলের সমসাময়িক আকর ইতিহাসের অভাব। তথাপি ঐতিহাসিক তথ্যের এ শূন্যতা অনেকটাই পূরণ হয়েছে সমসাময়িক সাহিত্য, বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণ বৃত্তান্ত, উৎখননকৃত স্থাপত্যনিদর্শন, শিলালেখ, তাম্রলিপি, ধাতব মুদ্রা, হিন্দু-বৌদ্ধ মূর্তি ও উৎকীর্ণ টেরাকোটা ফলকের মাধ্যমে। ঐতিহাসিকগণ একমত যে, মধ্যযুগে সমতট ছিল বৌদ্ধ ধর্মের শেষ আশ্রয়স্থল। সমতটের ভৌগোলিক অবস্থান নিয়ে ঐতিহাসিকদের…