২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ১৬ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০১৭ইংরেজী

বুদ্ধ জীবন চরিত

আষাঢ়ী পূর্ণিমা : অনাবিল এক আনন্দের দিন

আষাঢ়ী পূর্ণিমা : অনাবিল এক আনন্দের দিন শুভ আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথি, যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় দেশব্যাপী বৌদ্ধ সম্প্রদায় এদিবসটি পালন করছে প্রতিটি বিহারে। ধর্মীয় আবেশে, পুলকিত মনে আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা সকলে বিহারে সমবেত হয়ে পঞ্চশীলে প্রতিষ্ঠিত হয়ে বুদ্ধ পূজা উৎসর্গ করবেন। কেউ কেউ অষ্টশীলও গ্রহণ করবেন। আজকের আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথিতে বুদ্ধের যেই ঘটনাগুলো অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ সেগুলো হলোণ্ড সিদ্ধার্থের মাতৃজঠরে প্রতিসন্ধি গ্রহণ, সিদ্ধার্থের গৃহত্যাগ, পঞ্চবর্গীয় শিষ্যদের নিকট ধর্মচক্র প্রবর্তন, ঋদ্ধি প্রদর্শন, মাতৃদেবীকে ধর্মোপদেশ প্রদানে…

শীল-সমাধি-প্রজ্ঞার অনুশীলনে আষাঢ়ী পূর্ণিমার পুণ্যালোকে জীবন ভরে উঠুক

শীল-সমাধি-প্রজ্ঞার অনুশীলনে আষাঢ়ী পূর্ণিমার পুণ্যালোকে জীবন ভরে উঠুক আজ পবিত্র আষাঢ়ী পূর্ণিমা। বিশ্বের সকল বৌদ্ধদের অন্যতম পবিত্র একদিন। আজ থেকে পবিত্র মহান ভিক্ষু সংঘের ত্রৈমাসিক বর্ষাব্রত শুরু হবে। সেই সাথে শুরু হবে তিন মাসের জন্য মহান ভিক্ষু সংঘের শীল, সমাধি, প্রজ্ঞার অনুশীলন ও গৃহীদের দান, শীল, ভাবনা ও উপোসথ ব্রতের শিক্ষাও। পুণ্যময় এ তিথিটি বৌদ্ধ জীবনে নানা কারণে অর্থবহ এবং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পবিত্র আষাঢ়ী পূর্ণিমার তাৎপর্যময় দিকগুলো হচ্ছে, এই তিথিতে…

আষাঢ়ী পূর্ণিমার তাৎপর্য : পঞ্চ মহিমায় উদ্ভাসিত

আষাঢ়ী পূর্ণিমার তাৎপর্য : পঞ্চ মহিমায় উদ্ভাসিত যে পাঁচটি কারণে আষাঢ়ী পূর্ণিমার তাৎপর্য বৌদ্ধদের নিকট অতীব গুরুত্বপূর্ণ এক।। তথাগতের মাতৃগর্ভে প্রতিসন্ধি গ্রহণ : সিদ্ধার্থ গৌতম মাতৃগর্ভে প্রতিসন্ধি গ্রহণের পূর্বে তূষিত স্বর্গে দেবপুত্ররূপে অবস্থান করছিলেন। পৃথিবীর মানুষ তখন মনুষ্যত্ব হারিয়ে বিভিন্ন যাগ যজ্ঞ নিয়ে ধর্ম কর্ম ভুলে পশুর মত জীবন যাপন করছিল। তখন দেবগণের প্রার্থনায় বহুজনের হিতের ও মঙ্গলের তথা জীবজগতের মুক্তির জন্য পবিত্র আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথিতে তিনি কপিলাবস্তুর রাজা শুদ্ধোধনের…

মহাকশ্যপ : ভগবান বুদ্ধের প্রথম মহাশ্রাবক

মহাকশ্যপ : ভগবান বুদ্ধের প্রথম মহাশ্রাবক ভগবান বুদ্ধের প্রথম মহাশ্রাবক কে ছিলেন? ভগবান বুদ্ধ নিজের পরিহিত চীবর একমাত্র কার সাথে বিনিময় করেছিলেন? কে সেই মহাপুণ্যবান ব্যক্তি? জানতে হলে পড়ুন...... মহাকশ্যপ : ভগবান বুদ্ধের প্রথম মহাশ্রাবক। গৃহীকালে তাঁহার নাম ছিল পিপ্ফলী মানব। তিনি ব্রহ্মলোক হইতে চ্যুত হইয়া মগধ রাজ্যের অন্তর্গত মহাতীর্থ ব্রাহ্মণ গ্রামে ব্রাহ্মণ মহাশালকুলে কপিল ব্রাহ্মণের গৃহে জন্মগ্রহণ করিয়াছিলেন। তাঁহার স্ত্রী ভদ্রা কাপিলানি মদ্র রাজ্যে সাগল নগরে ব্রাহ্মণ মহাশালকুলে কোসিয়…

বুদ্ধ ও বেলাম সূত্র

বুদ্ধ ও বেলাম সূত্র বুদ্ধ বেলাম সূত্রের মাধ্যমে কী শিক্ষা দিয়েছেন? বর্তমান বৌদ্ধ জাতির ক্রান্তিলগ্নে এই শিক্ষা কেন প্রয়োজন? তথাগত মহাকারুণিক বলেছেনঃ অতি প্রাচীনকালে বেলাম নামক জনৈক ব্রাহ্মণ ছিলেন। সেই সময় তিনি মহাদান দিয়েছিলেন। কিভাবে দিয়েছিলেন? রৌপ্যপূর্ণ চুরাশি সহস্র সুবর্ণ পাত্র, সুবর্ণ দ্বারা পরিপূর্ণ চুরাশি সহস্র রৌপ্য পাত্র, সপ্তরত্ন, পরিপূর্ণ চুরাশি সহস্র কাংস্য পাত্র। সুবর্ণ অলঙ্কার ও সুবর্ণ ধ্বজায় অলঙ্কৃত হেমজালে আচ্ছাদিত চুরাশি সহস্র হস্তীর সিংহ-চর্ম, ব্যাঘ্র-চর্ম, নেক্ড়ে-চর্ম ও পাণ্ডুকম্বল…

জ্যৈষ্ঠ পূর্ণিমার তাৎপর্য

জ্যৈষ্ঠ পূর্ণিমার তাৎপর্য বুদ্ধের রত্নঘর চৈত্যে চতুর্থ সপ্তাহ অবস্থান  মহাকারুণিক তথাগত ভগবান বুদ্ধ পবিত্র বৈশাখী পূর্ণিমা তিথিতে বোধিবৃক্ষমূলে বুদ্ধত্ব লাভ করার পর প্রথম সপ্তাহে দেবগণের সন্দেহ দূরীকরণার্থে বোধিপালংকে ৮ম দিবসে যমক প্রতিহায্য ঋদ্ধি প্রদর্শন পূর্বক গভীর ধ্যানে মগ্ন থাকেন। দ্বিতীয় সপ্তাহে অনিমেষ চৈত্য হতে সাতদিন যাবত চোখের পলক না ফেলে অনিমেষ লোচনে বোধিবৃক্ষের দিকে তাকিয়ে অসীম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছিলেন। তৃতীয় সপ্তাহে ভগবান বুদ্ধ ১৯টি পদক্ষেপে চংক্রমণ ধ্যান করেছিলেন এবং ৪র্থ…

বিশ্ব বৌদ্ধদের জাতীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা ও প্রাসঙ্গিক কিছুকথা

বিশ্ব বৌদ্ধদের জাতীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা ও প্রাসঙ্গিক কিছুকথা সিদ্ধার্থ গৌতমের জন্ম : শাক্যরাজ শুদ্ধোধন ও অগ্রমহিষী মহামায়া দেবীর পুত্ররূপে জন্মগ্রহণ করেন কুমার গৌতম। দেবী মহামায়া যখন দশমাস কাল অতিক্রম করছেন তখন তাঁর পিত্রালয়ে যাবার সাধ জাগে। রাজা শুদ্ধোধন কপিলাবস্তু থেকে দেবদহ নগরে যাবার সমস্ত ব্যবস্থা করে দেন। কপিলাবস্তু ও দেবদহ নগরের মধ্যবর্তী স্থানে লুম্বিনী উদ্যানে পৌঁছলে দেবীর প্রসব বেদনা শুরু হল। মাতৃকুক্ষি হতে নিষ্ক্রান্ত হয়ে তিনি সপ্তপদ অগ্রসর হন।…

ফাল্গুনী পূর্ণিমার তাৎপর্য : তথাগতের শাক্যরাজ্যে গমন ও জ্ঞাতি সম্মেলন

ফাল্গুনী পূর্ণিমার তাৎপর্য : তথাগতের শাক্যরাজ্যে গমন ও জ্ঞাতি সম্মেলন মহাকারুণিক তথাগত ভগবান বুদ্ধ রাজা বিম্বিসার নির্মিত বেণুবন বিহারে অবস্থান করছেন। বহুজনের হিতের জন্য বহুজনের মঙ্গলের জন্য ধর্মসুধা বিতরণ করে চলেছেন। রাজা শুদ্ধোধন ৭ বছর ধরে পুত্রকে দেখেননি সুতরাং তিনি পুত্রকে দর্শনের জন্য অত্যন্ত ব্যাকুল হয়ে উঠলেন। রাহুলের বয়স এখন সাত বৎসর। সংসার ত্যাগ করে যাওয়ার পর থেকে পিতাকে দেখার সৌভাগ্য তার হয়নি। রাজা তার একজন মন্ত্রীকে ১০০০ লোকসহ বুদ্ধকে…

বুদ্ধের মহাপরিনির্বাণ ও মাঘী পূর্ণিমার তাৎপর্য

বুদ্ধের মহাপরিনির্বাণ ও মাঘী পূর্ণিমার তাৎপর্য মাঘী পূর্ণিমা দিবসে মহাকারুণিক বুদ্ধ বৈশালীতে  পিন্ডাচরণ শেষে আনন্দকে নিয়ে বৈশালীর অদূরে চাপাল চৈত্যে এসে উপস্থিত হয়ে তাঁর জন্য বি¯তৃত আসনে উপবেশন করতঃ আনন্দকে লক্ষ্য করে বললেন, ”হে আনন্দ,! রমণীয় বৈশালী, রমণীয় উদেন চৈত্য, রমণীয় গৌতমক চৈত্য, রমণীয় সত্ত্স্ব চৈত্য, রমণীয় বহুপুত্র চৈত্য, রমণীয় আনন্দ চৈত্য,  রমণীয় চাপাল চৈত্য। হে আনন্দ, যে কারো চারি ঋদ্ধিপাদ ভাবিত বর্ধিত, বহুলীকৃত, রথগতি সদৃশ্য, অনর্গল অভ্যস্থ বাস্তুভূমি সদৃশ্য প্রতিষ্ঠিত অধিষ্ঠিত…

যশোধরা দেবী এবং বোধিসত্ত্ব সিদ্ধার্থের জন্মান্তরের কাহিনী

যশোধরা দেবী এবং বোধিসত্ত্ব সিদ্ধার্থের জন্মান্তরের কাহিনী একদা ভগবান বুদ্ধ জেতবনে অবস্থানকালে যশোধরা দেবী সম্পর্কে বলেছিলেন। বুদ্ধ বললেন- হে ভিক্ষুগণ, আমি শুধু যে এখন যশোধরা দেবীকে এরূপে লাভ করেছি তা নয়, পূর্বে ও তাকে স্ত্রীত্বে বরণ করবার জন্য বিরাট রাজ্যশ্রী, এমন কি মাতাপিতাকে পর্যন্ত ত্যাগ করে অন্যরাজ্যে গিয়েছিলাম। অতীতে কাশীরাজ্যে ব্রহ্মপুর নামক নগরে বন্ধুমিত্র নামক এক রাজা সাম্যভাবে ধর্মতঃ রাজত্ব করতেন। তাঁর অগ্রমহিষীর নাম ছিল দেবধীতা| তৎকালে বোধিসত্ত্ব তাবতিংশ স্বর্গ…

আনন্দ স্থবির ও চন্ডাল কন্যা উপাখ্যান

আনন্দ স্থবির ও চন্ডাল কন্যা উপাখ্যান চন্ডাল কন্যা কে ছিলেন এবং কেন আনন্দ স্থবিরকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন? একদিন আয়ুষ্মান আনন্দ পিন্ডাচরণে বের হয়ে ভোজনকার্য্য শেষ করিয়া জলপানের জন্য নদীর ধারে যাওয়ার সময় চন্ডাল কন্যার থেকে পানের জন্য কিঞ্চিৎ জল চাহিলেন। চন্ডালের মেয়ে নিজেদের নীচু জাতি ভেবে জল দিতে চাহিল না। তাঁহার জলের প্রয়োজন জাতির প্রয়োজন নাই আনন্দ এইকথা বলিলে চন্ডালকন্যা তাঁহাকে জল দান করে। আনন্দ জল পান করিয়া বিহারের দিকে…

বুদ্ধ কর্তৃক আর্তের সেবা

বুদ্ধ কর্তৃক আর্তের সেবা আমরা সবাই বুদ্ধ কিভাবে সেবা পেয়েছেন তা জানি। কিন্তু কেউ কি জানি যে, বুদ্ধ নিজেও আর্তের সেবা করেছেন? বুদ্ধের জীবদ্দশায় দেখা যায় আনন্দ মহাপরিনির্বাণ লাভ না করা পর্যন্ত বুদ্ধের সেবা করেছেন প্রধান সেবক হিসেবে থেকে। অন্যদিকে বুদ্ধ যখন পারিল্যেয় বনে চলে যায় তখন সেখানে হাতি, বানর বুদ্ধের সেবা করেছেন। তবে বুদ্ধ যে শুধু সেবা গ্রহণ করেছেন তা নয়, বুদ্ধ নিজেও আর্তের সেবা করেছেন। আজ জানব সেই…

জীবক বুদ্ধকে কি প্রশ্ন করেছিলেন?

জীবক বুদ্ধকে কি প্রশ্ন করেছিলেন? বুদ্ধ যখন আম্রবনে বাস করছিলেন তখন একদিন মহাভিষক জীবক বুদ্ধের সংগে সাক্ষাৎ করতে গেলেন এবং বুদ্ধকে বন্দনা করত: একপার্শ্বে উপবেশন করে বুদ্ধকে জিজ্ঞেস করলেন----ভদন্ত, শোনা যায়, আপনার দায়ক-দায়িকাগণ নাকি আপনার উদ্দেশ্যে প্রাণী হত্যা করেন এবং আপনি জেনে শুনে সে মাংস আহার করেন। তা কি সত্যি? নাকি আপনার নামে মিথ্যা অপবাদ এবং আপনাকে অপদস্থ করার জন্য এসব বলেন? তখন তথাগত বললেন, হে জীবক---আমাদের উদ্দেশ্যে জীব হত্যা…

পৌষ পূর্ণিমার তাৎপর্য

পৌষ পূর্ণিমার তাৎপর্য পৌষ পূর্ণিমা। পৌষ পূর্ণিমার তাৎপর্য ও প্রাসঙ্গিক কথা পাঠকের জ্ঞাতার্থে এখানে উপস্থাপন করা হল। তথাগতের লংকা গমন : পৌষ পূর্ণিমা দিনে অর্থাৎ বুদ্ধত্ব লাভের নয় মাস পরে ভগবান লংকাদ্বীপে সদ্ধর্ম প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে প্রথম যাত্রা করেছিলেন।তথাগত বুদ্ধ তিনবার সিংহলে গমন করেছিলেন। প্রথমবার উরুবেলা কশ্যপ, নদী কশ্যপ, গয়া কশ্যপ এই তিন ভাইকে স্বধর্মে দিক্ষীত করে উত্তর কুরুতে পিন্ডাচরণ করত: অনোবতপ্ত হ্রদের পাশে ভোজন করত: বুদ্ধত্ব লাভের নবম মাসে সিংহলের…

তৃষ্ণাই দুঃখের কারণ

তৃষ্ণাই দুঃখের কারণ অমধুর মধুর-রূপে, শত্রু মিত্র-রূপ ধরিয়া,দুঃখ এসে সুখেরি বেশে মত্তজনে যায় দলিয়াএই জাতকে দুইটি শিক্ষণীয় বিষয় আছে। ১। ভগবান সুপ্পবাসা-কে জিজ্ঞাসা করিলেন : সুপ্পবাসে, তুমি এইরূপ পুত্র আরও চাও কি? ভন্তে ভগবন, আমি এইরূপ আরও সাতপুত্র চাই। পুত্রের কথা শুনিয়া সাত বৎসর সাতদিনের গর্ভবেদনাজনিত বিষম দুঃখ একদিনে পুত্র-লোলতায় ভুলিয়া গেল; এই লোলতাই তৃষ্ণা|২। একজন শ্রদ্ধাবান উপাসক বুদ্ধের ফাং ৭ দিনের জন্য পিছিয়ে দিতে গিয়ে যে প্রশ্ন করেছিলেন তাহা…