২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ৯ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শুক্রবার, ২৩ জুন ২০১৭ইংরেজী

বৌদ্ধ দর্শন

মূর্খসঙ্গ মার্গফল লাভের উপনিশ্রয় সম্পত্তিও ধ্বংস করতে পারে

মূর্খসঙ্গ মার্গফল লাভের উপনিশ্রয় সম্পত্তিও ধ্বংস করতে পারে কিভাবে মূর্খসংগ ভয়ংকর হয়ে দাড়ায়? উপরাজকালে কুমার অজাতশত্রু দেবদত্তের ঋদ্ধিবলে বশীভূত হয়ে তাঁর প্রতি অত্যন্ত ভক্তিপরায়ণ হন। তিনি প্রতিদিন পাঁচশত ভিক্ষুর খাদ্য দেবদত্তের নিকট পাঠাতেন এবং সকাল বিকাল তার সেবার জন্য গমন করতেন। দেবদত্ত যখন বুঝতে পারেন যে কুমার সম্পূর্ণ তাঁর বশে এসেছেন তিনি একদিন কুমারকে বলেন- ‘পূর্বে মানুষেরা দীর্ঘায়ুসম্পন্ন ছিল, এখন কিন্তু মানুষের আয়ু অতি কম। এমনও হতে পারে যে আপনি…

জগতে কয় প্রকার পুদ্গল বিদ্যমান ও তাঁদের গুণাবলী

জগতে কয় প্রকার পুদ্গল বিদ্যমান ও তাঁদের গুণাবলী পৃথিবীতে কয় প্রকার পুদগল আছে? তাদের গুণাবলী কি কি?তথাগত মহাকারুণিক বলেছেন --- হে ভিক্ষুগণ, পৃথিবীতে চার প্রকার পুদ্গল বিদ্যমান। সেই চার প্রকার কী কী? যথা : অনুস্রোতগামী পুদ্গল, প্রতিস্রোতগামী পুদ্গল, প্রতিষ্ঠিত পুদ্গল, ত্রিলোক অতিক্রান্ত ও নির্বাণে স্থিত পুদ্গল। ভিক্ষুগণ, অনুস্রোতগামী পুদ্গল কাকে বলে? এ জগতে কোনো পুদ্গলকামের প্রতি অনুরক্ত হয় এবং পাপকর্ম সম্পাদন করে। একেই বলা হয় অনুস্রোতগামী পুদ্গল।প্রতিস্রোতগামী পুদ্গল কাকে বলে?…

পণ্ডিত-শ্রামণের সংসর্গ লাভে সর্বদুঃখ হতে মুক্তি লাভ

পণ্ডিত-শ্রামণের সংসর্গ লাভে সর্বদুঃখ হতে মুক্তি লাভ আজ আমরা জানব বয়সে ছোট, কিন্তু ধর্ম জ্ঞানে জ্ঞানী এবং সর্ব আসব ক্ষয়প্রাপ্ত শ্রামণের গুণরাশি।সংকিচ্চ শ্রামণ শ্রাবস্তীর এক মহাধনী ব্রাহ্মণ-পরিবারে জন্ম নিয়েছিলেন। সপ্তবর্ষ বয়ঃক্রমকালে ধর্মসেনাপতি শারীপুত্রের নিকট তিনি প্রব্রজিত হন এবং কেশচ্ছেদনের সময় প্রতিসম্ভিদাসহ অর্হত্ত্ব সাক্ষাৎ করেন।একসময় ত্রিশজন ভিক্ষু বুদ্ধ হতে কর্মস্থান গ্রহণ করে ভাবনার জন্য অরণ্যে যাচ্ছিলেন। ভগবান অরণ্যে তাঁদের বিপদ হবে জেনে তাঁর ছোট শ্রামণ সংকিচ্চকে সঙ্গে নিতে বলেন। তাঁরা প্রথমে…

মিথ্যাবাদিতার পরিণাম কি হয়?

মিথ্যাবাদিতার পরিণাম কি হয়? প্রাচীনকালে ভারতের সমুদ্রোপকুলে এক বন্দর ছিল। তথায় এক নগ্নসাধু বাস করতেন। পণ্ডর নামক নাগরাজ ও সুপর্ণরাজ প্রতিরাত্রে সে তপস্বীকে সেবা করতে আসত। একদিন সুপর্ণরাজ আগে এসে তাঁকে বন্দনা করে বলে- ভন্তে, নাগ ধরতে গিয়ে তাদের তুলতে না পেরে আমাদের বহু জ্ঞাতি বিনষ্ট হচ্ছে। তাদের তুলতে না পারার রহস্য নাগরাজ জানে। আপনি আমাদের প্রতি অনুকম্পা করে নাগরাজ হতে জেনে তা যদি আমাকে বলেন আমাদের মহোপকার হয়। তপস্বী …

মন ও ধর্ম

মন ও ধর্ম মনোপুব্বংগমা ধম্মা মনোসট্ঠো মনোময়া,মনসা চে পদুট্ঠেন ভাসতি বা করোতি বা,ততো নং দুক্খমন্বেতি চক্কং’ব বহতো পদং।মন ধর্মসমুহের পূর্বগামী, মন এদের প্রধান এবং এরা মনোময় বা মনের দ্বারা গঠিত। যদি কোউ দোষযুক্ত মনে কোন কথা বলে কিংবা কাজ করে, তবে শকটবাহীর পদানুগামী চক্রের ন্যায় দুঃখ তার অনুসরণ করে।মনোপুব্বংগমা ধম্মা মনোসেট্ঠা মনোময়া,মনসা চে পসন্নেন ভাসতি বা করোতি বাততো নং সুখমন্বেতি ছায়া’ব অনপায়িনী।মন ধর্মসমূহের অগ্রণী, মন এদের প্রধান এবং এরা মনের…

পুনঃপুন জন্ম দুঃখজনক!

পুনঃপুন জন্ম দুঃখজনক! একদিন কোটিপব্বতমহাৰিহার ৰাসী মহাঅনুরুদ্ধ ত্থেরো পিন্ডচরণার্থে সুমনার গৃহের সামনে অপেক্ষা করছিলেন। মহাঅনুরুদ্ধথেরো জাতিস্মর জ্ঞানসম্পন্ন ছিলেন। তিনি ভিক্ষুদের বললেন: ভিক্ষুগণ, কি সুন্দর-অপরূপা এই সুমনা যে লকুণ্ডকঅতিম্বরো নামক মন্ত্রীর স্ত্রী সে তথাগত গৌতম বুদ্ধের সময় শুকরী ছিল। এটি শোনার সাথে সাথে তার মধ্যে জাতিস্মর জ্ঞান উৎপন্ন হলো। সে তার অতীত জন্ম সমূহ দেখতে লাগল। জন্ম-জন্মান্তরে তার এই উত্থান পতন দেখে তার মধ্যে ভয় এবং সংবেগ উৎপন্ন হলো। অতঃপর সুমনা…

আদর্শ সমাজ ও জাতি গঠনে বুদ্ধধর্মের ভূমিকা

আদর্শ সমাজ ও জাতি গঠনে বুদ্ধধর্মের ভূমিকা ভগবান গৌতম বুদ্ধের সমকালীন অনেক জাতিগোষ্ঠী নিজেদের আচার-আচরণে, নীতি-আদর্শে ও ত্যাগ-তিতিক্ষায় প্রদীপ্ত হয়ে অত্যন্ত সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী জাতি হিসেবে নিজেদের তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছিলেন। জ্ঞান-বিজ্ঞানে, বিদ্যা-বুদ্ধিতে ও শিল্প চর্চায় তারা ছিলেন অতুলনীয় এবং সকলের প্রশংসিত। সে সময়ে বৈশালী, শ্রাবস্তী, রাজগৃহ ইত্যাদি জনপথ ছিল সমৃদ্ধ নগরী। এসব জনপদের অনেক শ্রেষ্ঠী, ব্রাহ্মণ, গৃহী, ধার্মিক ব্যক্তি এমনকি সমাজে অবহেলিত ও নিগৃহীত ব্যক্তি এবং নারী বুদ্ধধর্মের আদর্শে…

বৌদ্ধ পণ্ডিত অশ্বঘোষ এবং নাগার্জুনের জীবন ও সাহিত্যকর্ম

বৌদ্ধ পণ্ডিত অশ্বঘোষ এবং নাগার্জুনের জীবন ও সাহিত্যকর্ম ১. ভূমিকাবুদ্ধধর্ম দর্শনের আবির্ভাব হয় ভারতবর্ষে এবং যে সব বৌদ্ধপণ্ডিত দার্শনিক এবং সাহিত্যিকবৃন্দ সৃজনশীলতার সাধনায় নিয়োজিত রেখে বুদ্ধের ধর্ম ও দর্শনকে বহুমুখী ধারায় ছড়িয়ে দিয়ে বৌদ্ধ সাহিত্যকে নানা তথ্য ও তত্ত্বে, উপাদানে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন : মহাকবি অশ্বঘোষ, মাধ্যমিক শূন্যবাদ দর্শনের প্রবক্তা নাগার্জুন, যোগাচার বাদী দার্শনিক অসঙ্গ, বিজ্ঞানবাদী দার্শনিক বসুবন্ধু, দিঙ্‌নাগ, তাত্ত্বিক শান্তিদেব, প্রভৃতি। আমার আলোচ্যের বিষয়ে…

বর্তমান ভিক্ষুনি সংঘ : ধর্মের পরিহানীর অশনি সংকেত

বর্তমান ভিক্ষুনি সংঘ : ধর্মের পরিহানীর অশনি সংকেত ভগবান বুদ্ধ যখন কুশিনারার শালবনে মহাপরিনির্বান শয্যায় শায়িত তখন লক্ষ কোটি দেবতা এবং ভিক্ষুসংঘদের অনেকেই ভগবান বুদ্ধের মহাপরিনির্বান এর কথা শুনে কান্নাকাটি করছিলেন। তখন সুভদ্র নামক এক ভিক্ষু জনৈক একজন ভিক্ষুকে ভৎসনা করে বলেছিলেন, তোমরা এতো কান্নাকাটি করছ কেন? উনি মারা (পরিনির্বান) গিয়েছেন খুবই ভাল হয়েছে। উনি বেচেঁ থাকাকালিন শীল, সমাধি, প্রজ্ঞার শাসন-অনুশাসন এবং অনুশীলনের জন্যে আমাদেরকে অনেক ভৎসনা করতেন। এখানে সুভদ্র…

আনাপান চর্চার সুফল

আনাপান চর্চার সুফল অনেকদিন ধরেই বিষয়টি নিয়ে লিখতে চাচ্ছি। কারণ এই বিষয়টি বর্তমান সময়ের জন্য খুবই উপযোগী একটি বিষয়। বিশেষ করে আমাদের তরুণ সমাজে এই বিষয়টি এখন গুরুত্ব সহকারে নেয়া হচ্ছে। সেইজন্য লিখাটির অবতারণা করলাম। বিদর্শন ভাবনা করতে গেলে আমাদের প্রথমেই আনাপান চর্চা করতে হবে। অর্থাৎ মূল প্রবেশ দ্বার হচ্ছে আনাপান। পালিতে আন+অপান বা বাংলায় আশ্বাস + প্রশ্বাস। আনাপান চর্চার সুফল সম্পর্কে তথাগত মহাকারুণিক বুদ্ধ বলেছেন, যিনি আনাপান বা আশ্বাস-প্রশ্বাসকে…

মার বিজয়ী অর্হৎ উপগুপ্ত মহাথেরোকে আমন্ত্রণ এবং পূজা পদ্ধতি

মার বিজয়ী অর্হৎ উপগুপ্ত মহাথেরোকে আমন্ত্রণ (ফাং) এবং পূজা করার নিয়ম যে কোন পুণ্যময় সভা সমাবেশ ও অনুষ্ঠানাদিতে ঝড়, বৃষ্টি জাতীয় অন্তরায় ও অন্যান্য যে কোন প্রকার উপদ্রব, দুর্ঘটনাদি হতে মুক্ত হয়ে, নিরাপদে নির্বিঘ্নে অনুষ্ঠান সমাপনের জন্য মহাঋদ্ধিমান, মার বিজয়ী অর্হৎ উপগুপ্ত মহাথেরোকে পূজা করার প্রয়োজনীয়তা সম্রাট ধর্মাশোকের ৮৪ হাজার ধর্মচৈত্য উৎসর্গের দিন থেকে প্রচলিত। পূজা করার দিন অথবা পূর্বদিন স্নানকৃত্য সম্পন্ন করে হাতে ফুল এবং ধূপকাঠি নিয়ে বুদ্ধমূর্তির সম্মুখে…

সপ্ত অপরিহানিয় ধর্ম্ম সম্পর্কে তথাগত মহাকারুণিক কি বলেছেন?

সপ্ত অপরিহানিয় ধর্ম্ম সম্পর্কে তথাগত মহাকারুণিক কি বলেছেন? মগধ মহামাত্য বর্ষকার ব্রাহ্মণ প্রস্থানের অনতিবিলম্বে ভগবান আয়ষ্মান আনন্দকে সম্বোধন করিয়া বলিলেন, হে আনন্দ, তুমি গিয়া যে সকল ভিক্ষু রাজগৃহ আশ্রয় করিয়া বিহার করিতেছে, তাহাদিগকে আহবান করতঃ উপস্থান-শালাতে সম্মিলিত কর। সাধু ভন্তে বলিয়া আয়ুষ্মান আনন্দ রাজগৃহ আশ্রয় করিয়া যে সমুদয় ভিক্ষু বিহার করিতেছিলেন তাঁহাদিগকে উপস্থান-শালায় সম্মিলিত করতঃ ভগবৎসমীপে প্রত্যাগমন করিয়া ভগবানকে অভিবাদন পূর্ব্বক এক পার্শ্বে দাঁড়াইয়া নিবেদন করিলেন, ভন্তে, ভিক্ষু-সঙ্ঘ সমবেত হইয়াছেন,…

দানশ্রেষ্ঠ কঠিন চীবর দান: প্রবর্তন,পদ্ধতি ও পুণ্যফল

দানশ্রেষ্ঠ কঠিন চীবর দান : প্রবর্তন, পদ্ধতি ও পুণ্যফল “চরথ ভিক্খবে চারিকং (হে ভিক্খুগণ, সম্মুখে এগিয়ে যাও), বহুজন হিতায-বহুজন সুখায-লোকনুকম্পযা (বহুজনের হিত-কল্যাণের জন্য, সুখের জন্য পৃথিবীর প্রতি অনুকম্পা পূর্বক), আত্ম হিতায সুখায দেবমনুস্‌সানং (নিজের, দেব-মানবের হিত, মঙ্গল, সুখের জন্য), দেসেত ভিক্খবে ধম্ম আদিকল্যানং, মজ্জকল্যানং, পরিযোসানকল্যানং (ধর্ম দেশনা করো যে ধর্ম আদিতে কল্যাণ, মধ্যে কল্যাণ, অন্তিমে কল্যাণ)”। সর্বজ্ঞ-সর্বদর্শী, দেব-মানবের শাস্ত্রা মহাকারুণিক তথাগত বুদ্ধের এরকম প্রেরণাদায়ী নির্দেশে অনুপ্রাণিত হয়ে সদ্ধর্ম্ম ছড়িয়ে দেয়ার…

বৌদ্ধ ইতিহাসে চীবর দানের বিখ্যাত দাতাগণ

বৌদ্ধ ইতিহাসে চীবর দানের বিখ্যাত দাতাগণ চীবর দানের ফল কুশল হোক,অকুশল হোক কর্ম অনু্যায়ী সত্ত্বগণ ফল প্রাপ্ত হয়।নিজের কৃত কুশল ও অকুশলের কর্মের ভাল-মন্দ ফল নিজেকেই ভোগ করতে হয়।কুশল ও অকুশল কর্মের (শক্তিগুলো) ফলগুলো নিজের সাথে নিরবিচ্ছিন্নভাবে ছায়ার ন্যায় অনুসরণ করে,যখনই সুযোগ লাভ করে তখনই কর্মগুলো ফলপ্রদান করে। দান,শীল,ভাবনার মাধ্যমে সত্ত্বগণ নিজের পারমী পূরণের পথে ধাপে ধাপে এগিয়ে যায়।তার মধ্যে সত্ত্বগণ দানের দ্বারা চিত্তের সংকীর্ণতা,মাৎসর্য, লোভ ও দ্বেষাদি পাপধর্ম ছিন্ন…

অজ্ঞানতাই মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু

অজ্ঞানতাই মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু পন্ডিত ব্যক্তি হতাশা না হয়ে উচ্চাকাঙ্খাকে হৃদয়ে দৃঢ়ভাবে পোষণ করবেন। আমি নিজের মধ্যে দেখতে পাচ্ছি, আমি যা ইচ্ছা করেছিলাম, আমার তা পরিপূর্ণ হয়েছে। এ সত্য প্রকাশ করে বুদ্ধ এক ধর্ম সভায় দেশনা করেন। নদী যেমন পর্বত-শিখরে উৎপন্ন হয়ে অগ্রগতিতে বাধার পর বাধা অতিক্রম করে এবং পারিপার্শ্বিক জল ধারার সাহায্যে ক্রমে বড় হয়ে এবং উভয় কুলের অপ্রেমেয় জীবনের হিত করে তার লক্ষ্য মহাসাগরে মিশে যায়, তেমন…