২৫৬১ বুদ্ধাব্দ ১২ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ সোমবার, ২৬ জুন ২০১৭ইংরেজী

বৌদ্ধ দর্শন

বুদ্ধের উদান গাথা

বুদ্ধের উদান গাথা মানবপুত্র সিদ্ধার্থ কল্প কল্পান্তরের সাধনায় পরিপূর্ণতা লাভ করে যখন তিনি বুদ্ধ হলেন, তখন তার অন্তর্নিহিত প্রবল আনন্দোচ্ছাস স্বতঃ উৎসারিত উদান গানে মন্ত্রিত হল সেই সুনির্জন বনভূমি - অনেক জাতি সংসারং- সন্ধাবিসসং অনিব্বিসং,গহকারকং গবেসন্তো- দুক্ খা জাতি পুনপ্পুনং,গহকারক দিট্'ঠোসি পুসগেহংন কাহসি সব্বাতো ফাসুকা ভগ্'গা গহকুটচি সংখিতংবিসংখারং গতংসিত্তং, তনহানং খয়মজ্জগা,অথাৎ - জন্ম জন্মান্তর পথে ঘুরেছি পাইনি সন্ধানসে কোথা লুকিয়ে আছে, যে এ গৃহ করেছে নির্মাণ পুনঃ পুনঃ দুঃখ পেয়ে…

কঠিন চীবর দান কঠিন কেন? কঠিন চীবর দান কঠিন কেন?

কঠিন চীবর দান কঠিন কেন? কঠিন চীবর দান কঠিন কেন? আমরা সবাই বলে থাকি কঠিন চীবর দান করব। আসলে আদৌ আমরা কখনো কি চিন্তা করে দেখি, কঠিন বলা হয় কেন? সারা বছর যে কোন সময় আমরা চীবর দান করে থাকি। তাহলে চীবর দান এবং কঠিন চীবর দানের মধ্যে পার্থক্য কি? এবার জানব চীবরকে কঠিন বলা হয় কেন? চীবরের আগে কঠিন শব্দটি যুক্ত হলো কেন?ভগবান বুদ্ধ প্রমুখ সাধু ব্যক্তিগণ উত্তম-উত্তম বলে…

ঢাল নেই তরোয়াল নেই তবু বিশ্বজয়

ঢাল নেই তরোয়াল নেই তবু বিশ্বজয় আজও পৃথিবীর বহু দেশ, বহু অঞ্চল তাঁর পদানত, কিন্তু এ জন্য তাঁকে কোনও তরবারি ব্যবহার করতে হয়নি। এই জয় আইডিয়ার জয়, দর্শনের দিগ্বিজয়। পৃথিবীতে এর আগে বহু দিগ্বিজয় হয়েছে, রামচন্দ্র থেকে পঞ্চপাণ্ডব অশ্বমেধের ঘোড়া ছুটিয়েছেন। কিন্তু মানুষের দুঃখ দূর করার জন্য কাষায় বস্ত্র পরিহিত, মুণ্ডিতমস্তক শ্রমণদের দিগ্বিজয় এই প্রথম। বোধিজ্ঞান লাভের পর পাঁচ শিষ্যকে গোতম বুদ্ধ তাই বলেছিলেন, ‘যাও, মানুষের দুঃখ দূর করতে এ…

বুদ্ধ পূজা : প্রাসঙ্গিক কিছু কথা

বুদ্ধ পূজা : প্রাসঙ্গিক কিছু কথা একটি মাত্র দিন, তাদের অপচয় করতে দিনবুদ্ধ পূজা অপচয় কিনা প্রসঙ্গে দুই বছর আগে এ পেইজ থেকে প্রকাশিত হয় প্রবন্ধটি, সময়ের প্রয়োজনে লেখাটি পুনঃপ্রকাশিত হলো শুরুতেই বলে রাখা প্রয়োজন বুদ্ধের ধর্ম স্থান, কাল, পাত্র এক কথায় পর্যায়ভেদে ভিন্ন ভিন্ন পরিলক্ষিত হয়। এক জায়গায় আপনি দেখতে পাবেন বুদ্ধ চিত্তকে ৮৯ প্রকার বলেছেন, আবার অন্য জায়গায় এটাকে ১২১ প্রকার পর্যন্ত বিস্তৃত করেছেন। এক জায়গায় বুদ্ধ বেদনাকে…

সম্যকদৃষ্টি : কিসে আর্যশ্রাবক সম্যকদৃষ্টি সম্পন্ন হন?

সম্যকদৃষ্টি : কিসে আর্যশ্রাবক সম্যকদৃষ্টি সম্পন্ন হন? এক সময় ভগবান শ্রাবস্তীর নিকটে জেতবনে অনাথপিণ্ডিকের বিহারে অবস্থান করছিলেন। সে সময়ে একদিন আয়ুষ্মান সারিপুত্র সমবেত ভিক্ষুগণকে আহ্বান করে বললেন, বন্ধুগণ!। ভিক্ষুরা প্রত্যুত্তরে হ্যাঁ ভন্তে বলে সাড়া দিলেন। আয়ুষ্মান সারিপুত্র বললেন’ বন্ধুগণ! এই যে লোকে সম্যকদৃষ্টি , সম্যকদৃষ্টি বলে; কিসে আর্যশ্রাবক সম্যক দৃষ্টিসম্পন্ন হন? কিসে তাঁর দৃষ্টি ঋজু হয়? কিসে বা ধর্মে তিনি অচল চিত্ত প্রসাদসম্পন্ন হয়ে এই সদ্ধর্মে আগত (প্রবিষ্ট) হন?আয়ুষ্মান সারিপুত্র…

ধর্ম : চয়নিকা রিতিমা

ধর্ম : চয়নিকা রিতিমা ধর্ম অথবা দর্শন ? বুদ্ধ ভাষিত আগ্রাসী মনোভাব বিহীন নৈতিক এবং দার্শনিক মতবাদ যা অনুসারীবৃন্দের কাছ থেকে কোন অন্ধ বিশ্বাস দাবী করে না, কাল্পনিক মতবাদে বিশ্বাসী করে তোলে না, কুসংস্কারময় কোন আচার-অনুষ্ঠান কে উৎসাহিত করে না, কিন্তু এর পরিবর্তে এমন একটি সুবর্ণ সুযোগ প্রদান করে যাতে অনুসারীবৃন্দ বিশুদ্ধ জীবন যাপন এবং নির্মল চিন্তার অনুশীলনে সকল প্রকার অকুশল বীজ ধ্বংস করে সর্বোচ্চ প্রজ্ঞা অর্জন করতে পারে, একে…

অনাগত আর্যমিত্র বুদ্ধ সম্পর্কে গৌতম বুদ্ধের ভবিষ্যদ্বাণী ও পঞ্চ বিলুপ্তি

অনাগত আর্যমিত্র বুদ্ধ সম্পর্কে গৌতম বুদ্ধের ভবিষ্যদ্বাণী ও পঞ্চ বিলুপ্তি একদা গৌতম বুদ্ধ শাক্যদের নির্মিত নিগ্রোধারামে অবস্থানকালীন তাঁর বিমাতা ও মাসি মহাপ্রজাপতি গৌতমী দু’খানা চীবর তৈরী করে বুদ্ধকে দান করেছিলেন। বুদ্ধ একখানা চীবর গ্রহণ করে অপর চীবরখানা অন্য ভিক্ষুকে প্রদান করার জন্য বললেন। মহাপ্রজাপতি গৌতমী চীবরখানালয়ে এক এক করে প্রত্যেক ভিক্ষুকে বললেন, ভন্তে, চীবর চীবরখানা দান করছি, গ্রহণ করুন। কিন্তু কোনো ভিক্ষুই ঐ চীবরখানা গ্রহণ করলেন না।” কারণ, তাঁরা জানতেন…

‎সংস্কার ও ধ্বংস হয়‬ : সুলেখা বড়ুয়া

‎সংস্কার ও ধ্বংস হয় :‬ সুলেখা বড়ুয়া "বুদ্ধের মুখ নিশ্রিত বাণীসংস্কার ও ধ্বংস হয়।" সংস্কারের পালি অভিধা সংখার, সংস্কার উৎপত্তির জন্য পাপ ও পূণ্য অর্থাৎ অবিদ্যা প্রধান প্রত্যয়, অনেকে অবিদ্যা দ্বারা শুধু পাপ কাজের মাধ্যমে অকুশল সংস্কার সৃষ্টি করে বলে মনে করে, অবিদ্যা দুঃখকে সুখের মুখোশ পরিয়ে পরোক্ষভাবে পুণ্য বা কুশল অকুশল এবং আনেজ্ঞা সংস্কার উৎপাদনে ও সাহায্য করে, সুতারাং এ অজ্ঞতার কারণে অকুশল, কুশল এবং আনেজ্ঞা (নিশ্চল) সংস্কার উৎপন্ন হয়,…

পুনর্জন্ম বিষয়ক মতবাদ

পুনর্জন্ম বিষয়ক মতবাদ সুপ্রাচীন কাল থেকেই পুনর্জন্ম অথবা মৃত্যু পরবর্তী জীবন বিষয়ক সমস্যা একটি বিতর্কিত বিষয় হিসাবে প্রায় অধিকাংশ ধর্মীয় গুরুদের মনযোগ আকর্ষণ করে আসছে। পুনর্জন্মে বিশ্বাসী ব্যক্তিবর্গ ও ছিলেন এবং অবিশ্বাসী ব্যক্তিবর্গ ও ছিলেন। পুনর্জন্মের পক্ষে বিপক্ষে প্রাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ এবং ব্যখ্যা এসেছে এই মতবাদে বিশ্বাসী এবং বিরুদ্ধবাদীদের নিকট থেকে যা দুদিক থেকেই সমানভাবে গ্রহণযোগ্য বলে মনে হয়, কিন্তু সকল ধর্মীয় ইতিহাসে এমন কোন সময় নেই যেখানে এই সমস্যার…

ষোল প্রকার বিদর্শন স্তরের রুপ বর্ণনা

ষোল প্রকার বিদর্শন স্তরের রুপ বর্ণনা বিদর্শন ভাবনাকারীদের মার্গ লাভের পূর্বে ষোল প্রকার বিদর্শনস্তর অতিক্রম করতে হবে। নিম্নে সে ষোল প্রকার স্তরের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা প্রদত্ত হলো :(১) নাম-রূপ পরিচ্ছেদ জ্ঞান : নাম-রূপ ব্যতিত কোন কিছু সৃষ্ট নয়। নাম-রূপের যথাযথ জ্ঞানের অভাবেই আমি সংজ্ঞা উৎপন্ন হয়। এ নাম-রূপ সত্ত্বও নয়। নাম-রূপই সংস্কারের সৃষ্টি। নৌকার সাহায্যে যেমন নদী পার হওয়া যায় তেমনি নাম-রূপের সাহায্যে এ দেহ তরী চালিত হচ্ছে। নাম-রূপ পরষ্পরের সম্বন্ধযুক্ত…

পুনর্জন্ম বিষয়ক মতবাদ

পুনর্জন্ম বিষয়ক মতবাদ সুপ্রাচীন কাল থেকেই পুনর্জন্ম অথবা মৃত্যু পরবর্তী জীবন বিষয়ক সমস্যা একটি বিতর্কিত বিষয় হিসাবে প্রায় অধিকাংশ ধর্মীয় গুরুদের মনযোগ আকর্ষণ করে আসছে। পুনর্জন্মে বিশ্বাসী ব্যক্তিবর্গ ও ছিলেন এবং অবিশ্বাসী ব্যক্তিবর্গ ও ছিলেন। পুনর্জন্মের পক্ষে বিপক্ষে প্রাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ এবং ব্যখ্যা এসেছে এই মতবাদে বিশ্বাসী এবং বিরুদ্ধবাদীদের নিকট থেকে যা দুদিক থেকেই সমানভাবে গ্রহণযোগ্য বলে মনে হয়, কিন্তু সকল ধর্মীয় ইতিহাসে এমন কোন সময় নেই যেখানে এই সমস্যার…

বিদর্শন ভাবনা কীভাবে শুরু করবেন? (পর্ব-১)

বিদর্শন ভাবনা কীভাবে শুরু করবেন? (পর্ব-১) আজ থেকে ধারাবাহিকভাবে ধ্যান বিষয়ে কিছু উপস্থাপন করব। যারা এই বিষয়ে আগ্রহী আশা করি তারা উপকৃত হবেন। বিদর্শনকে পালিত বিপস্সনা বলা হয়। বিপস্সনা শব্দটি বিপস্সনা সহযোগে গঠিত হয়েছে। বিভিন্নতা অর্থে বি এবং দেখা অর্থে পসসনা ব্যবহৃত হয়েছে। এখন প্রশ্ন হতে পারে বিভিন্ন ভাবে কি দেখব? আমাদের দেহের ষড় ইন্দ্রিয় দ্বারে বর্তমান সময়ে যাহা কিছু বিষয় বা আলম্বন উৎপন্ন হয় সে সব বিষয়কে স্মৃতি দ্বারা দর্শন করতে…

বুদ্ধ ধাতু সংরক্ষণ : মহাকশ্যপ স্থবির, অজাতশত্রু ও সম্রাট অশোক (শেষ পর্ব)

বুদ্ধ ধাতু সংরক্ষণ : মহাকশ্যপ স্থবির, অজাতশত্রু ও সম্রাট অশোক (শেষ পর্ব) রাজা ধর্মাশোক বুদ্ধের ধাতু সমূহ কিভাবে পেলেন? অদ্ভুদ সেই কাহিনী। জানতে চাইলে আজকের শেষ পর্বে পড়ুন বিস্তারিত। তখন দেবরাজ ইন্দ্র বিশ্বকর্ম্মাকে ডাকিয়া বলিলেন; তাত অজাতশত্রু কর্ত্তৃক বুদ্ধাস্থি নিধাহিত হইয়াছে, এখন তুমি গিয়া তৎসমুদয় রক্ষার সুব্যবস্থা কর। দেবেন্দ্রের আদেশে বিশ্বকর্ম্মা আসিয়া বাড় সঙ্ঘাটি যন্ত্র যোজিত করিলেন। স্ফটিকবর্ণের খড়্গ হস্তে কাষ্ঠমূর্ত্তি সকল বুদ্ধাস্থি গৃহের চতুর্দ্দিকে বায়ুবেগে ঘুর্ণয়মানযন্ত্র যুক্ত করিয়া এক…

বুদ্ধ শাসনে পুত্র দান : কেন করবেন এবং দানের সুফল কী?

বুদ্ধ শাসনে পুত্র দান কেন করবেন? পুত্র দানের সুফল কী কী? স্বীয় ঔরস জাত পুত্রকে বুদ্ধশাসনের উপকার ও পুত্রের মুক্তির হেতু শ্রদ্ধার সহিত প্রব্রজিত করাইয়া দেওয়াকে পুত্রদান বলে। পুত্রদানের কিঞ্চিন্মাত্র হইলেও পুণ্য-ফল লাভের আশায় শাসন প্রতিরূপ দেশে সপ্তাহকালের জন্য হইলেও পুত্রকে প্রব্রজিত করাইয়া রাখে। এই প্রব্রজ্যা দ্বারা ভবিষ্যৎ জন্মে চির মুক্তির নিষ্ক্রমণের সংস্কার উৎপন্ন হয়।  বলা হয়েছে যদি কোন চক্রবর্তী রাজ স্বীয় ঋদ্ধি প্রভাবে জম্বুদ্বীপ প্রমাণ বিহার নির্মাণ করিয়া, তাহাতে…

বাক্য জনিত পাপ : সুলেখা বড়ুয়া

বাক্য জনিত পাপ : সুলেখা বড়ুয়া তথাগত ভগবান সম্যক সম্বুদ্ধ পরম শান্তি পদ নির্ব্বাণ গমনের, চরম মুক্তি লাভের যে ঋজুপথ আবিস্কার করেছেন তাহা আর্য অষ্টাঙ্গিক মার্গ নামে অভিহিত । এই আর্য অষ্টাঙ্গিক মার্গের সম্যক বাক্য নিয়ে আমার এহেন প্রয়াস । সম্যক বাক্য - বাক্য প্রধানত চার প্রকার, অকুশল কুশল : ১/ মিথ্যা বাক্য ১/ সত্য বাক্য ২/ পিশুন বাক্য ২/ মিলন বাক্য ৩/ পরুষ বাক্য ৩/ মধুর বাক্য ৪/ সম্প্রলাপ বাক্য…