২৫৬২ বুদ্ধাব্দ ১০ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ইংরেজী
Clear

21°C

Chittagong

Clear

Humidity: 95%

Wind: 11.27 km/h

  • 22 Feb 2018

    Sunny 30°C 16°C

  • 23 Feb 2018

    Mostly Sunny 30°C 17°C

  • সেই খানেরই গলদ, যেখানে সততা নেই। টাকা পয়সার দিকে নজর দিলে কাজের নেশা নষ্ঠ হয়ে যায়। টাকা পয়সা বড় কথা নয়, কাজ চাই।

    মহাসংঘনায়ক শ্রীসদ্ধর্মভাণক বিশুদ্ধানন্দ

  • আমাদের সমাজে যে এখনো কোন বড় কোন প্রতিভার জন্ম সম্ভব হচ্ছে না, তার কারণ পরশ্রীকাতরতা। আমরা গুণের কদর করি খুব কম। কিন্তু মন্দটাকে সগর্বে প্রচার করে বেড়াতে পারি।

    মহাসংঘনায়ক শ্রীসদ্ধর্মভাণক বিশুদ্ধানন্দ মহাথের

  • যুদ্ধ সভ্যতাকে ধ্বংস করে এবং শান্তি বিশ্বকে সুন্দর করে । যুদ্ধ মানুষকে অমানুষ করিয়ে দেয়, যুদ্ধ ছিনিয়ে নেয় প্রেম-ভালবাসা এবং যুদ্ধের আগুনে আত্নহুতি দিতে হয় বহু প্রাণের । যুদ্ধকে মনে প্রাণে ঘৃণা করা উচিৎ।

    মহাসংঘনায়ক শ্রীসদ্ধর্মভাণক বিশুদ্ধানন্দ মহাথের

  • আপনি যেমন মহৎ চিন্তা করেন কাজেও সেইরুপ হউন, আপনার কথাকে কাজের সাথে এবং কাজকে কথার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ করে তুলুন।
    মহাসংঘনায়ক শ্রীসদ্ধর্মভাণক বিশুদ্ধানন্দ

মৈত্রী ভাবনা কিভাবে করবেন?

মঙ্গলবার, ১৬ জুন ২০১৫ ১৬:২৬ ইলা মুৎসুদ্দী

মৈত্রী ভাবনা কিভাবে করবেন?

নিজের প্রাণের মমতার তুলনা দিয়া তথা সর্ব্বজীবের প্রাণের মমতা প্রদর্শন করিয়া--- আমি শত্রুহীন হই, বিপদহীন হই, রোগহীন হই এবং নিজে সুখে বাস করি। আমার ন্যায় আমার আচার্য্য (শিক্ষাগুরু), উপাধ্যায় (দীক্ষাগুরু), মাতাপিতা, উপকারী ব্যক্তি, মধ্যস্থ ব্যক্তি (যেই ব্যক্তি আমার উপকারও করে না অপকারও করে না) এবং শত্রুতাকারী ব্যক্তি সকলে শত্র“হীন হউক, বিপদহীন হউক, রোগহীন হউক, সুখে বাস করুক, সর্ব্বপ্রকার দুঃখ হইতে মুক্ত হউক, তাহারা তাহাদের নিজ নিজ সৎকর্ম্ম দ্বারা প্রাপ্ত সম্পত্তি হইতে বঞ্চিত না হউক, কারণ জীবমাত্রেই নিজ নিজ কর্ম্মের অধীন হইয়া সুখ ও দুঃখভোগের অধিকারী।

(ক্ষুদ্র হইতে মহান উদার চিত্তপ্রসারতার দৃষ্টি দিয়া) আমার এই বিহারে (আরামে বা আশ্রমে অথবা বাসগৃহে) যত প্রকার সত্ত্ব (জীব বা প্রাণী) বাস করে, আমার এই বিচরণক্ষেত্রে বা বিচরণস্থানে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, এই নগরে বা রাজার এলাকায় যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, এই জনপদে বা গ্রামে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, এই পৃথিবীতে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, এই চক্রবালে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে আর মহা ঐশ্বর্য্যশালী সীমান্তবাসী যেই সব দেবতা আছেন এই সত্ত্বগণের সকলেই শত্র“হীন হউক, বিপদহীন হউক, রোগহীন হউক, সুখে বাস করুক, সর্ব্বপ্রকার দুঃখ হইতে মুক্ত হউক, তাহারা তাহাদের নিজ নিজ সৎকর্ম্মদ্বারা প্রাপ্ত সম্পত্তি হইতে বঞ্চিত না হউক, কারণ জীবমাত্রেই নিজ নিজ কর্ম্মের অধীন হইয়া সুখ ও দুঃখভোগের অধিকারী।

(দশদিগন্তপ্রসারী সত্ত্বগণের প্রতি মৈত্রী প্রদর্শন করিয়া) পুর্ব্বদিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, দক্ষিণদিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, পচ্ছিম দিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, উত্তর দিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, পূর্ব্ব-দক্ষিণ কোণের দিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, দক্খিণ-পচ্ছিম কোণের দিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, পচ্ছিম-উত্তর দিকে কোণের দিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, উত্তর-পূর্ব্বকোণের দিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে, অধোদিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে এবং ঊর্দ্ধদিকে যত প্রকার সত্ত্ব বাস করে সেই সত্ত্বগণ,প্রাণিগণ, ভূতগণ (অতিসূক্ষ্ম প্রাণিগণ), পু¹লগণ (ব্যক্তিগণ), নিজেকে নিজে প্রাণী বলিয়া মনে করিতে পারে এমন ক্ষুদ্র বা সূক্ষ্ম) প্রাণিগণ, স্ত্রীলোকগণ, পুরুষগণ, আর্য্যগণ (অর্থাৎ যাঁহারা স্রোতাপত্তি ইত্যাদি মার্গফল লাভ করিয়াছেন তাঁহারা), অনার্য্যগণ (অর্থাৎ যাহারা স্রোতাপত্তি ইত্যাদি মার্গফল লাভ করিতে পারে নাই তাহারা), মনুষ্যগণ (সাধারণ জনগণ), (ভূত-প্রেত-যক্ষ-রাক্ষস-পিচাশ প্রভৃতি) অমনুষ্যগণ, কীট-পতঙ্গ-পশু-পক্ষী ও নরকস্থ প্রাণীগণ সকলেই শত্রুহীন হউক, বিপদহীন হউক, রোগহীন হউক, সুখে বাস করুক, সর্ব্বপ্রকার দুঃখ হইতে মুক্ত হউক, তাহারা তাহাদের নিজ নিজ সৎকর্ম্ম দ্বারা প্রাপ্ত সম্পত্তি হইতে বঞ্চিত না হউক, কারণ জীব মাত্রেই নিজ নিজ কর্ম্মের অধীন হইয়া সুখ ও দুঃখভোগের অধিকারী।

যদি কোন ব্যক্তি বা সাধক উপরোক্ত বিস্তৃতাকারে মৈত্রীর বিষয়সমূহ অর্থসহ কন্ঠস্থ করিতে না পারেন তবে সেই ব্যক্তি বা সাধক সংক্ষেপে হইলেও অর্থসহ মৈত্রীর বিষয়সমূহ শিক্ষা করা একান্ত প্রয়োজন, যেমন-
“অহং সুখিতো হোমি, নিদুক্খো হোমি।” অর্থাৎ আমি সুখী হই, দুঃখহীন হই। ২। “অহং অবেরো হোমি, অব্যাপজ্ঝো হোমি, অনীঘো হোমি, সুখী অত্তানং পরিহরামি। অর্থাৎ আমি শত্রুহীন হই, বিপদহীন হই, রোগহীন হই, সুখে বাস করি। ৩। অহংবিয সব্বে সত্তা অবেরা হোন্তু, অব্যাপজ্ঝা হোন্তু, অনীঘা হোন্তু, নিদুক্খা হোন্তু, সুখী অত্তানং পরিহরন্তু। অর্থাৎ আমার ন্যায় সমস্ত প্রাণী শত্রুহীন হউক, বিপদহীন হউক, রোগহীন হউক, দুঃখহীন হউক এবং সুখে বাস করুক।

এতদ্ব্যতীত শত্রুব্যক্তির প্রতি মৈত্রীভাবনা করিতে হইলে এসো সপ্পরিসা সুখী হোতু নিদুক্খো অর্থাৎ এই সৎপুরুষটি সুখী হউক, দুঃখহীন হউক। কোন শত্র“ স্ত্রীলোকের প্রতি মৈত্রীভাবনা করিতে হইলে “এসো সপ্পুরিসো সুখিনী হোতু নিদুক্খা অর্থাৎ এই সৎ স্ত্রীলোকটি সুখী হউক, দুঃখহীন হউক।

উক্তরূপে ভাবার্থ সহ মৈত্রী ভাবনার বিষয়গুলি হৃদয়ঙ্গম করিয়া ভাবনাকারী সাধককে সর্ব্বজীবের প্রতি উত্তমরূপে মৈত্রীস্থাপন করিতে হয় আর ব্রহ্মাগণের নিত্য নৈমিত্তিক আচার অনুশীলনে চারি ইর্য্যাপথে অর্থাৎ গমনে, দাঁড়ানে, শয়নে ও উপবেশনে সর্ব্বজীবের প্রতি মৈত্রী, করুণা, মুদিতা ও উপেক্ষাভাব সংরক্ষণের জন্য সাধকের চিত্তকে সর্ব্বক্ষণ সজাগ রাখিতে হয়।

বৌদ্ধ সাধনা নীতি অবলম্বনে লিখেছেন ইলা মুৎসুদ্দী

লেখক : কলাম লেখক, প্রাবন্ধিক, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক : নির্বাণা পিস ফাউন্ডেশন, সহযোগী সম্পাদক : নির্বাণা (www.nirvanapeace.com), This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

Nirvana Peace Foundation

নির্বাণা কার্যক্রম
Image
নির্বাণা পিস ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শিশু কিশোরদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা সম্পন্ন নির্বাণা পিস ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শিশু কিশোরদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা সম্পন্নশিশু কিশোরদের… ( বিস্তারিত )
Image
নির্বাণা পিস ফাউন্ডেশনের ব্যতিক্রমী আয়োজন নির্বাণা পিস ফাউন্ডেশনের ব্যতিক্রমী আয়োজন শিশু কিশোরদের মধ্যে ধর্মীয় চেতনা… ( বিস্তারিত )
Image
পূর্ব আধারমানিক মানিক বিহারে বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যান ট্রাষ্টের আর্থিক অনুদানের চেক প্রদান পূর্ব আধারমানিক মানিক বিহারে বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যান ট্রাষ্টের আর্থিক অনুদানের… ( বিস্তারিত )
আরও
সংবাদ সমীক্ষা
আরও